বর্ষণে পিছুটান

সূর্য্যিমামা, ও সূর্য্যিমামা, বিশ্বাস করে আমায় তুমি বলো,
তোমার ওই ওতো আলো, কে আজ কেড়ে নিলো?
গাছের শাঁখায়, তরুলতায়,  মাতাল আন্দোলন,
ফিসফিস বাতাসে, কিসের এই আলাপন?

লুকোচুরি?লুকোচুরি! জেনে গেছি সব,
ব্যথানীল  হৃদয়ের কান্নার রব;
প্রথম ফোঁটায় তার মৃদু শিহরন,
দুষ্টু মেঘ, এ তোমার কেমন আচরণ?

সোঁদা-সোঁদা মাটি, বুনো পথে হাটি, যেতে হবে দূর,
হিয়া মাঝে, বড় বাজে, সেই চেনা সুর;
আধো-আধো সুখ, প্রাঞ্জল দুখ, বুকে রাখি ধরি,
নেই কাঁটাতার, স্বপ্নের ঘর, কোথা খুঁজে ফিরি?

বৃষ্টির জল, চোখ ছলছল, মিশ্রণখানি বেশ,
একে অপরের জন্যে তবুও,দুঃখ হয়না শেষ;
ওরে ও মন, পায়ে পড়ি তব, পারিনা সইতে এই ব্যথা,
স্মৃতিগুলো মোর মুছে ফেলো নাকও, লঘু কোরে দাও তীব্রতা।

রাজপথ ঘুরে, নর্দমা খুড়ে, খুঁজি জীবনের মানে,
পাইলাম তারে ক্লিষ্ট শিশুর জীবনের আবেদনে;
জ্বলজ্বলে চোখ, ব্যথা করে বুক, বলি কাছে আয় ভাই,
জীবন-লটারি হেরেছি আমিও, আজ আর গুমর নাই।

নব-জীবনের নব প্রভাতে,তোদের মাঝে ঠাঁই,
হাতে রেখে হাত, কল্পিত তাঁত, স্বপ্ন বুনে যাই;
ওহে জ্ঞানী, ঋষি-মুনি, লিখে যাও গাথা,
দেখেছো কি বালকের ঘুড়িছেঁড়া ব্যথা?

সে কোন অব্যক্ত ব্যথা?বিষাদের ইতিকথা, বার্তা বেতার,
ওরা বলে, দুর ছাই! কেন করো নষ্ট? সময় অসার।

বেলা যে বড় বয়ে গেল, সময় কাল গিলে নিলো,এখানেই থাক,
ভালো থেকো বুড়োবুড়ি, ভালো থেকো কাক;
ভালো থেকো চেনা দুটো বিড়াল শাবক,
আর?ভালো থাক ভিখারির জীবনের ছক।

অন্য স্বর সম্পর্কে

ননরেজিস্টার্ড সদস্যগণও যেন সরবে লিখতে পারেন সেই জন্য এই একাউন্ট। যোগাযোগ পাতায় কিছু লিখে জমা দিলে সরব এর মডারেটরগণ তা মূল্যায়ন করবেন। মনোনীত হলে এই একাউন্ট দিয়ে ছাপা হবে।
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে কবিতা-এ। স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

3 Responses to বর্ষণে পিছুটান

  1. বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

    সরব এ স্বাগতম। কয়েক জায়গায় ছন্দ পতন ঘটেছে মনে হলো

  2. ফিনিক্স বলেছেনঃ

    :welcome:

    ভালো ল্গেছে।
    তবে অনেক বানান ভুল আছে।
    পরেরবার আরেকটু যত্নবান হবে আশা করি। 🙂

  3. শারমিন বলেছেনঃ

    ভালো লেগেছে
    :welcome:

শারমিন শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।