বিবেকের হুলিয়া

জনাব সিরাজী,

সালাম নিবেন। আজ পত্রিকায় আপনার নামে দূর্নীতি দমন কমিশনের ১১টি মামলার কথা জানতে পেরেছি। বেশ হয়েছে। কি দরকার ছিল আপনার? কি দরকার ছিল সরকারের তাবত মাথাওয়ালা রাঘব বোয়ালদের সাথে পাঙ্গা নেবার। বাংলাদেশের ইতিহাসে সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার ব্যাঙ্ক জালিয়াতির ভয়াবহ ইতিহাস না জানলে কারো কিছু ক্ষতি হতো? অর্থমন্ত্রী নিজেই বলেছেন ঐ টাকা ‘কিছুই না’… আপনিও অমন কিছু ভেবে নিয়ে চেপে যেতেন। রোজ গাড়িতে করে বাড়ি ফিরতেন। রুই মাছের মাথা দিয়ে লাঞ্চ সারতেন। সরকারের নেক নজরে পড়লে জোষ্ঠ্যতা মত প্রমোশনও পেতেন। এখন সামলান হ্যাপা। আপনি কি ভেবেছিলেন  প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্যবিষয়ক উপদেষ্টার জোগসাজোগ খুজে পাবে দুদক? উনিতো ‘এলাকার মেয়ে’ মেহেরুন্নেসা মেরীর সাথে শহীদ বুদ্ধিজীবি ডা. ফজলে রাব্বিকে নিয়ে একটা বই লিখছিলেন। তাই হয়তো ঘন ঘন দেখা করতেন। যদিও ডা. ফজলে রাব্বিকে নিয়ে মেরীর লেখা দুটি বই প্রকাশিত হয়ে গেছে বহু বছর আগেই। তৃতীয় কোন বই হয়তো লিখছিলেন।

কিংবা সোনালী ব্যাঙ্কের পরিচালনা পর্ষদকে দেখে নিবেন ভেবেছিলেন? হাসালেন। আপনি কি ভেবেছিলেন সোনালী ব্যাঙ্কের পরিচালনা পর্ষদের সাথে হলমার্কের দহরম মহরম খুজে পাবে দুদক? যারা সুরঞ্জিত সেনের ৭৪ লক্ষ টাকার কালো বিড়াল খুজে পায় নি। বা, সুরঞ্জিত পূত্রের ৬০হাজার টাকা মাসিক মাইনের সাথে ৫ কোটি টাকার টেলিকম গেটওয়ে লাইসেন্স প্রাপ্তির মাঝেও কোন অসামঞ্জস্য খুজে পায় নি ওরা।  

 

বারবার বদলি করেছে ওরা আপনাকে বাংলাদেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। কি মারাত্মক ভূল আপনি করেছেন। এবার ওরা আপনাকে বদলি করবে জেলের কোন অন্ধকার সেলে। নিরীক্ষা রিপোর্টে আপনার দোষ খুজে পেয়ে দায়ী করা হয়নি কোথাও, কিন্তু আপনি ১১টি মামলার আসামী। বাংলার বিষাক্ত বাতাসে আপনি বিবেকের মতো ভয়ংকর সংক্রামক রোগ নিয়ে ঘুরছেন। রাষ্ট্রের প্রয়োজনেই আপনাকে কয়েদ করা দরকার। রিমান্ডে নিয়ে আপনার শরীরের গিটে গিটে ঝালাই করে বুঝিয়ে দেয়া দরকার, সত্য কথা বলা কি ভয়ংকর অপরাধ এদেশে। আমার এক ফেইসবুক বন্ধু কুঙ্গ থাঙ জানালো সর্ষের মধ্যে এখন আর ভূত থাকে না। আজকাল ভূতেরাই সর্ষের চাষ করছে। এই সমাজে ভালোমানুষ শব্দটা বোকামানুষ দিয়ে প্রতিস্থাপিত হয়ে গেছে কখন, কেউ খেয়াল করেনি।

 

আপনি মাথায় হুলিয়া নিয়ে পালিয়ে যান। কানাডা, অস্ট্রালিয়া, সুইডেন কিংবা দূরে কোথাও। হয়তো এয়ারপোর্টে ওরা চিনে ফেলবে আপনাকে। ‘নো ফ্লাই’ লিস্টে ভয়ংকর সন্ত্রাসীদের সাথে আপনার নাম হয়তো চলে এসেছে। থাক তাহলে, দেশেই কোথাও লুকিয়ে থাকেন। সুরঞ্জিত সাহেবের ড্রাইভার আজম যেমন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন, মাসের পর মাস। ধরা দিলে হয়তো শীতলক্ষ্যার পানি দুষিত করতো তার শরীর। পালিয়ে গিয়ে আজম ভালোই করেছে।

 

আমি জানি, নবাব সিরাজৌদ্দলাকে যেমন আশ্রয় দিয়েছিল অভাবী গ্রামের দরিদ্র কৃষক। আপনাকেও ওরা লুকিয়ে রাখবে পরম যন্তে। রাজ্য আর সুইস একাউন্ট হারালে খালেদা হাসিনাকে হয়তো ওমন কোন বাড়িতে আশ্রয় নিতে হবে। কিন্তু তারা কি পানি পাবে কারো কাছে? আপনি পাবেন নিশ্চিত। অনেক বছর পর ফিরবেন নিজের বাড়িতে। যেমন ফিরতে চাচ্ছে ড্রাইভার আজম। স্ত্রী-পুত্রকে দেখবেন। কিন্তু উতলা হবেন না। আপাতত পালিয়ে যান। বিবেকের মতো ভয়ংকর রোগের জীবাণু ছড়িয়ে দিন ৫৬ হাজার বর্গমাইলে। ভালো থাকবেন।

 

ইতি

হতভাগ্য বাঙ্গাল

বাঙ্গাল সম্পর্কে

আমি একজন ঘবেষক..চিন্তা করাই আমার কাজ...চিন্তিত ভাই ব্রাদারদের আমার পেজে স্বাগতম। [email protected] https://www.facebook.com/bangal
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে বিবিধ-এ। স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

6 Responses to বিবেকের হুলিয়া

  1. বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

    বিবেকের মতো ভয়ংকর রোগের জীবাণু ছড়িয়ে দিন ৫৬ হাজার বর্গমাইলে।

    খুব দরকার। আমরা ফেইসবুকে গেইল নিয়ে যতটা কথা বলি তার সামান্যও যদি বলতাম এই সিরাজীকে নিয়ে তাহলেও হয়ত অনেক কিছু হত

  2. মাধবীলতা বলেছেনঃ

    “বিবেকের মতো ভয়ংকর রোগের জীবাণু ছড়িয়ে দিন ৫৬ হাজার বর্গমাইলে। ”

    গায়ে কাঁটা দিল এই কথাটায়! ছড়াক ছড়াক ছড়াতেই হবে…

  3. স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

    “বিবেকের মতো ভয়ংকর রোগের জীবাণু ছড়িয়ে দিন ৫৬ হাজার বর্গমাইলে।”

    আমরা এমন খবর পড়ী, দীর্ঘশ্বাস ফেলি, ফেসবুকে গেইল নিয়ে স্ট্যাটাস দেই, ভাই খাই, ডাল খাই, এরপর আবারও কৃমির মতো বাস করতে থাকি। দু-চারজন হঠাৎ করে উঠে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করে। তাদের আবাস হয় জেলের অন্ধকার সেলে।

    বিবেক নিয়ে খুব বিপদে আছি……

    • স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

      “বিবেকের মতো ভয়ংকর রোগের জীবাণু ছড়িয়ে দিন ৫৬ হাজার বর্গমাইলে।”

      আমরা এমন খবর *পড়ি*, দীর্ঘশ্বাস ফেলি, ফেসবুকে গেইল নিয়ে স্ট্যাটাস দেই, *ভাত* খাই, ডাল খাই, এরপর আবারও কৃমির মতো বাস করতে থাকি। দু-চারজন হঠাৎ করে উঠে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করে। তাদের আবাস হয় জেলের অন্ধকার সেলে।

      বিবেক নিয়ে খুব বিপদে আছি……

  4. ফিনিক্স বলেছেনঃ

    মনে মনে বেশ আগে থেকেই একটা দংশন হচ্ছিল সিরাজী ভাইয়ের খবরটা জানার পর থেকে।
    মানুষটা সম্পর্কে যতটুকু শুনেছি বা জেনেছি পালিয়ে যাবার মত তিনি নন।
    তাই হতভাগ্য বাঙ্গালের মত আমাদের আশা তিনি পূরণ করবেন- সে সম্ভাবনা দুরূহ।

    হায়, বিবেক কেবল ৫৬ হাজার বর্গমাইলের আমজনতাকেই দংশে গেল আর কর্তা-ব্যক্তিদের মাথা থেকে মশারির মত ফাঁক গলে টুক করে পড়ে গড়াগড়ি খেল কেবল রাস্তায়।

    লেখার ব্যাপারে ছোট্ট দুটো কথা।
    কিছু টাইপো আছে, ঠিক করে নিলে ভালো হয়।
    ফন্ট চোখে লাগছে, চাইলে হাইলাইট করে দিতে পারেন তবে বিভিন্ন সাইজের ফন্ট একই সাথে ব্যবহার করলে পড়তে একটু অসুবিধা হয়।

স্বপ্ন বিলাস শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।