রাজিন রিভিউ – “The Great Gatsby”

দেখতে গেলাম হলিউড মুভি আর দেইখা আসলাম বাংলা মুভি। হিরু গরীব , নায়িকা বড়লোক ছাড়া বিয়া করুমনা। আবার হিরু আজি গ্রুপের মালিক ,নায়িকা বিবাহিত! সো হোয়াট? হেনতেন।

তবুও Amitabh Bachchan কে প্রথমবারের মত হলিউডের পর্দায় Leonardo DiCaprio ‘র সাথে দেখার অভিজ্ঞতা কিছুটা অনবদ্য বলে মুভিটি সম্পর্কে খুব খারাপ কিছু বলা ঠিকও না।

কাহিনী জানা যাক। সন ১৯২২। নাই বর্ষা , নাই অনন্ত , নাই মখা আলমগীরের “ঝাকানাকা ঝাকানাকা দেহ দোলা না” । নতুন স্পাইডার মুভিতে ভাত পায় না দেখে Nick ( Tobey Maguire) এখন নিউ ইয়র্কের চিপায় বইসা নোট ছাপে। নিউইয়র্কের তখন টাল্ডিবাল্টি অবস্থা। পয়সা আর পয়সা। সে সময়ের নাম Roaring Twenties। সারাদিন কাজ শেষে Nick ফিরে নিজের বাসায়। তার ছোট্ট বাসায় পাশে বিরাট এক ধনকুবেরের মহল। তার নাম “জলিল গ্যাটসবি” সংক্ষেপে J. Gatsby ( Leonardo Dicaprio)। অদ্ভুত টাইপের পাবলিক। খালি পার্টি দেয়। ভয়ানক জাঁকজমক সব পার্টি। পুরা শহরের সবার দাওয়াত। এদিকে নিজের দেখা দেয় না। মাঝে মাঝে জানালা দিয়া ফুচকি দিয়া নিকরে দেখে । সামনের নদীর সামনে হাত বাড়ায়ে খাড়ায় থাকে। বড়ই তাজ্জব পোলা।

নিক এর এক কাজিন Daisy ( Carey Mulligan) তার স্বামী আরেক বড়লোক Tom Buchanan ( Joel Edgerton) এর লগে থাকে নদীর ঐপাড়ের আরেক মহলে। নিক আর টম শালা-দুলাভাই টাইপের খাতির। এক লগে ঘুরতে বের হয়। আবার দুলাভাই আবার শালারে নিয়া তার গোপন প্রেমিকার বাড়ি গিয়া ফস্টি নস্টি ও করে।

একদিন হঠাৎ করে নিক দাওয়াত পায় Gatsby’র এক পার্টিতে। নিক দাওয়াতে যেয়ে জানতে পারে যে Gatsby’র পার্টিতে কেউ দাওয়াতে আসেনা। সবাই বিনা দাওয়াতেই Partyyyyyyyyyyyyyyyyyyy। কেডায় এই Gatsby? কেউ বলে আর্মিতে ছিল , কেউ বলে অক্সফোর্ডে পড়ছে আবার কেউ বলে অনন্তের সাথে একসাথে কাপড় ইস্ত্রী করতো। ঐ পার্টিতেই দেখা দেয় নিকের সাথে। গড়ে ওঠে সখ্যতা। পরেরদিন নিকরে ঘুরতে নিয়ে যায়। নিজের বন্ধু Meyer Wolfsheim ( Amitabh Bachchan)  এর সাথে দেখা করায় । পরে বোঝা যায় যে সবকিছু নিকের কাজিন ডেইজির জন্য। এককালে তার লগে ছিল প্রেম। কিন্তু গ্যাটসবি ছিল চরম ফকির। যুদ্ধের পর সে কেন জানি আর ফিরে আসেনি। এদিকে টম , ডেইজির জন্য কক্সবাজার থেকে মুক্তার মালা কিনে দেওয়ার ডেইজি গেসে গইলা। পাঁচ বছর পর গ্যাটসবি আবার চায় ডেইজিকে। নিক কিছুটা সাহায্য করে। ডেইজি নিজের বাসায় চায়ের দাওয়াত দেয়। সাথে গ্যাটসবিও আসে। পুনরায় দুজনের প্রেম জেগে ওঠে। এদিকে গ্যাটসবির বাসায় গিয়ে ডেইজি পুরাই টাশকি। এই পোলারে ছাড়া যায়?

বিখ্যাত উপন্যাস হলেও কাহিনী আমার কাছে তেমন আহামরি কিছুই লাগেনি। Buz Luhrman এর নির্দেশনায় শুধুমাত্র জাঁকজমকতাই প্রকাশ পেয়েছে। The Great Gatsby উপন্যাস নিয়ে এটি পঞ্চম চলচ্চিত্র। কিন্তু ত্রিমাত্রিক প্রথম মুভি। সেকারণে প্রথম দিকে 3D এর উপাদানগুলি কিছুটা বেশিমাত্রায় দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে। তবে বলবো মুভিটির জাঁকজমকতা খুবই ভালো লেগেছে। প্রতিবারই মনে হয়েছে ১৯২২ এর নিউইয়র্ক বেশ দারুন এক জায়গা।

অভিনয়ের দিক দিয়ে Leonardo DiCaprio ‘র বরাবরই কোন জবাব নেই। দারুন অভিনয়। বেচারার কপালে এখনও অস্কার আসলো না। অদ্ভুত। Tobey Maguire, Carey Mulligan দুজনকে বিরক্তিকর লেগেছে। দারুন করেছে টম চরিত্রে Joel Edgarton। Amitabh Bachchan এর দৃশ্যের দৈর্ঘ্য হাতে গুনে বের করা যাবে কত মিনিটের।

মুভিটির বেশ কিছু আবেগঘন দৃশ্য থাকলেও কেন জানি দর্শকদের মনে আঁচড় তো দুরের কথা একটা টোকাও মারতে পারেনি। সব মিলিয়ে The Great Gatsby মুভিটিকে Great বলতে পারছি না।

 

রেটিং – ১.৫ /৫

 

রাজিন সম্পর্কে

এক কথায় চলচ্চিত্র ভক্ত , বোদ্ধা নয়।
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে চলচ্চিত্র-এ এবং ট্যাগ হয়েছে , , , স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

9 Responses to রাজিন রিভিউ – “The Great Gatsby”

  1. শারমিন বলেছেনঃ

    রিভিউ ভালো লেগেছে 🙂
    মুভিটা দেখা হয় নাই।

  2. বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

    মুভিটা দেখব ভাবলুম! :haturi:
    রিভিউ এর হাত তো দিনকে দিন পরিণত হচ্ছে। 😀

  3. রুহশান আহমেদ বলেছেনঃ

    বুঝলাম, না দেখলেও মনে হয়না লস হবে।

  4. মাধবীলতা বলেছেনঃ

    কাস্টিং তো বেশ , তবে কাহিনী বেশ প্যাঁচালো মনে হল। আপনি কোথাকার হলে দেখলেন মুভিটা ?

  5. মুভি যেমন ইচ্ছা তেমন হোক, আমি আপনার রিভিউতে অনেক মজা পেলুম! :happy:

রাজিন শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।