চোখের ভেতর স্বপ্ন থাকে, স্বপ্ন বাঁচায় জীবনটাকে

কোন এক রুদ্রাকাশের হঠাৎ হওয়া মন খারাপের কালে
তোমার ঠোঁটের কোণের হাসি দেখে নিলাম ছলে

বলেছিলাম,”খুশি যে হলে??কেন??ভিজবে বলে??”
অবাক চোখে তাকিয়ে বলেছিলে,
“কিসে ভিজব!!জলে??নাহ, বৃষ্টি ভালোবাসিনা, জানোনা?”

“ও হ্যাঁ, তাইতো, তাহলে??”

“তুমি তো ভালোবাসো,তাই না?হাসলাম আমি তোমায় ভালোবেসেছিলাম বলে।”

আমি বলি,”কেন?ভুল হয়ে গেলো??”
ও না বলে উঠল, “নাহ, আমার হয় নি, তোমার কি হলো??”

মনে মনে বলি, “হয়তো হয়ে গেলো!”
কি করে জানি বুঝে যায়!!

বলে ওঠে,”কি??ভুল হয়েছিল??”

আমি বলি,”তা তো কিছুটা হয়েছিলোই!”
বলে,”কেন?? খুশি নও??”

বলি,”নিজের জন্যে??সবচেয়ে বেশি!!!
তোমার জন্যে??নাহ, খুব বেশি সন্তুষ্ট নই নিজেকে নিয়ে।”

বলে,”সেটা না হলেও চলবে, যাও ঘুমাও গিয়ে 

আমি বলি, “যদি মন কাঁদে??”

বলে,”কোন এক বর্ষায় চলে যেতে বলছো??,না বাবা, বরষায় যাবোনা!! বৃষ্টি ভালোবাসিনা তো! বললাম না?? এসে নিয়ে যেতে পারো, একা বেরোব না।”

বলি, “আচ্ছা, সই।”

“একটা কাজ করতে পারো??আমাকে নিয়ে হারাতে পারো??”

বলি,”কোথায় যাবে বলো??”

বলে, “তোমার স্বপ্নে যাবো, নিয়ে যাবে, বলো??”

বলি,”সব স্বপ্ন তোমার জন্যেই বরাদ্দ রইল,চলো??”

বলে, “যদি না থাকি আর??পারবে চলতে একা??”

বলি,”তুমি থাকলেই সব পথ সোজা,না থাকলেই বাঁকা।”

বলতেই থাকি,”যদি না থাকো, আমিও থাকবনা, কোথাও না, কোনভাবেও না,জানা অজানা, সবকিছুকেই মানা,নাহ, চলবে না, জ্বলবো না, গাইবোনা, পারবনা!”

বলে,”সব শেষে কি?? কিছুই না??”

আমি বলি,”হ্যাঁ, আমি আসলে কিছুই না, তুমি ছাড়া কিছুই না”

বলে, “তুমি তো দাঁড়িয়ে আছো আমাকে ছাড়া, হাটছো ও আমাকে ছাড়া!! তুমি কিছুই না?? তুমি না বৃষ্টি দেখছো, তা কি আমার চোখ দিয়ে?? তুমি শব্দ যে শুনছো, আমার কানে?? তুমি তো সবই একা করছো, তাও বলছো কিছুই না?? তুমি মানুষ!! জ্বলজ্যান্ত মানুষ!! আরো কিছু হতে চাও??”

কি বলব ভেবে পাই না, পরে বলি,

“একটা কথা কি জানো??ভালোবাসা যে অস্তিত্ব, মানো?? ভালোবাসলে সবকিছুই অর্থপূর্ণ লাগে!!, জীবন পরিপূর্ন লাগে!! ভালোবাসা না থাকলে?? সব থাকে, অর্থহীন হয়ে, তুমি না থাকলেও আমি থাকব, আমি হাটবো, চলবো, দেখবো, সব করব, আমি যে কিছু একটা, কিন্তু সেই “কিছু একটা” না!!যে হাটার সময় মনে অন্য কিছু চলত, স্বপ্নে ঢলতো, দেখতো, দেখার সময় চোখে অদৃশ্য স্বস্তি থাকতো, হ্যাঁ চলে যাবে জীবন, কি বলো?আমি যে মানুষ!!হ্যাঁ আমিও মানুষ!!”

বলে,”দেখাই যাক!!  

…………………………………………………………………..

হ্যা, মানুষ অনেক স্বপ্ন নিয়ে বাস করে, একসময় হয়তো স্বপ্ন ভেঙ্গে যায়, মানুষ তাও চলতে থাকে,দেখা যাক বলে দেখতেই থাকে অনেকে, হয়তো অনেককে দেখতে হয় না, কারও দেখার দরকার হয় না, কারো দেখার সুযোগ হয় না!!

নাহ জীবন আসলেই জটিল!! বড্ড জটিল!! তবু মানুষ স্বপ্ন দেখে!! নিজের মত থাকার, বদলে নেয় স্বপ্ন গুলোকে, নিজের মত করে, বার বার উঠে দাঁড়ায়!! বার বার!! স্বপ্ন দেখার শেষ হয় না!! কখনো না!! অথবা না বদলেই দেখতে থাকে একই স্বপ্ন!!!

স্বপ্ন দেখতেই থাকে!! এই একটা কাজ যে একই সাথে ঘুমিয়ে না ঘুমিয়ে করা যায়!! কেও বাঁধা দেয়ার নেই!!কেও না!! তা একই হোক বা ভিন্ন, ইচ্ছায় হোক বা অনিচ্ছায়!!

 

সবার জীবনের সব স্বপ্ন পূর্ণ হোক!! সবার জীবনের!!

তালপাতার সেনাপতি সম্পর্কে

কেউ ভাবে মানুষ, কেউ হয়তো অমানুষ, কেউ ভেবে বুঝেছে আমি অহঙ্কারী, কেউ ভেবে বের করেছে নিজেকে অনেক বেশি হাসিল করার চেষ্টা করতে আমি পারদর্শী, কারো কাছে হয়তো আমি খুব স্বাভাবিক, কারো কাছে পাগল, অস্বাভাবিকত্বের কমতি নেই এমন ভাবতেও অনেকে দ্বিধা করেনা। এত কিছুর লব্ধি বের করে কখনো ভেবে দেখা হয়নি আমি আসলে কি, কেমন। শুধু এইটুকু জানি, আমি আমি। আমি আর কেউ নই। শুধুই আমি.........আর এই আমি হয়েই বিদায় নিতে চাই
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে বিবিধ-এ। স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

1 Response to চোখের ভেতর স্বপ্ন থাকে, স্বপ্ন বাঁচায় জীবনটাকে

  1. জ্ঞানচোর বলেছেনঃ

    জীবন এমনই। ভেবে দেখুন না, এই জটিলতা আর দ্বিধা না থাকলে কেমন পানসে হয়ে যেতো সম্পর্কগুলো।
    মানিয়ে নেওয়াই তো প্রথম কাজ।

জ্ঞানচোর শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।