পাকিস্তান সমর্থকদের যুক্তি ও তার খণ্ডন

যুক্তি ১: পাকিস্তান কে যদি এতই ঘৃণা করেন তাহলে তাদের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করলেই হয় ! রাষ্ট্রীয় ভাবে তাদের দেশে আমন্ত্রন জানানো হয় কেন ??

 

খন্ডন ১ : আর্জেন্টিনার রাস্ট্রপ্রধান যখন ইংল্যান্ডে যায় অথবা ইংল্যান্ডের রাস্ট্রপ্রধান যখন আর্জেন্টিনা যায় তখনও রাস্ট্রীয় আতিথেয়তা দেয়া হয়,তাই বলে কোন আর্জেন্টাইন ইংল্যান্ডকে সমর্থন করেনা,তেমনি ইংল্যান্ড আর্জেন্টিনার সাপোর্ট করেনা।

 

রাশিয়ার সাথে তো জার্মানীর ভালো সম্পর্ক ,কারন জার্মানরা নিজেদের সংশোধন করছে, যুদ্ধের ক্ষতিপূরন ও দিয়েছে আবার মাফ চাইছে , সেই সাথে নিজের দেশের অপরাধীদের বিচার করছে ।

 

পক্ষান্তরে পাকিস্তান এখনো ক্ষমা চায় নি , আর দেয়ার মধ্যে দিয়া গেছে কতগুলা পাকি জারজ, যারা বিভিন্ন ছুতায় ফাকিস্তানের গুনগান গায় ।

 

যুক্তি ২: খেলা তো খেলাই । এর সাথে রাজনীতি মেশানোর কোনো দরকার নেই ।

 

খন্ডন ২.১: খেলার সাথে রাজনীতি আলাদা করে দেখার কোন উপায়ই নাই। বাংলাদেশ দল বলেন বা ভারত বা ইংল্যান্ড, দুনিয়ার প্রত্যেকটা টীমই একটা রাষ্ট্রের বা রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধিত্ব করে, আর রাষ্ট্র ব্যাপারটাই রাজনৈতিক। খেলার সাথে রাজনীতি যদি না-ই মিশত, তবে ভারত পাকিস্তান খেলা নিয়া সবার এত আগ্রহ থাকতনা, ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়ার এ্যাশেজ নিয়া এত মাতামাতি হতনা। রাজনৈতিকভাবে বা সাংস্কৃতিকভাবে এরা শত্রু বলেই এদের খেলাগুলোতেও সেই উত্তাপ ছড়ায় ।

 

খন্ডন ২.২: একটি কথোপকথন থেকে ব্যাপারটা আরও বোঝার চেষ্টা করি ।

রাস্তা দিয়ে হেটে যাচ্ছি এক বন্ধুর সাথে … কথা হচ্ছে …

আমিঃ আচ্ছা ক্রিকেটে এখন World Champion কে রে ?

বন্ধুঃ কেন অষ্ট্রেলিয়া

আমিঃ অষ্ট্রেলিয়া নাকি অষ্ট্রেলিয়া ক্রিকেট টিম ???

বন্ধুঃ একই তো কথা …

আমিঃ কেন এক হবে কেন ? খেললো তো ওরা ১১ জন … বড়োজোড় দলের ১৫ সদস্য আর কোচ ( যদিও অধিকাংশ কোচ আন্য দেশের হয়ে থাকে ) কে World Champion বলা যাতে পারে … তাই বলে পুরো অষ্ট্রেলিয়াকে !!!!!!

বন্ধুঃ আরে গাধা … এই যে বাংলাদেশের খেলা হচ্ছে তো ওরা কি শুধু ১১ জন খেলছে … আমরা … !!! ওরা খারাপ করলে আমরা ১৬ কোটি মানুষ হতাশায় ডুবি … ওরা ভালো করলে ১৬ কোটি মানুষ সারা দিন রাত উল্লাস করি … এই যে ওদের সমর্থন এর জন্য কত কিছু … কেন করি … কারন ওদের সাথেই জরিয়ে আছে আমাদের সবকিছু … ওদের হাতেই আজ বাংলাদেশের পতাকা … ওরা বাংলাদেশ কে তুলে ধরছে সারা বিশ্ব এর কাছে …

আমিঃ তাই নাকি !!! আচ্ছা বন্ধু তাহলে অন্য দেশ গুলোও নিশ্চয় ওদের দেশ কে তুলে ধরার জন্য খেলে ???

বন্ধুঃ তুই যে এতো গাধা আগে জানতাম না … শোন যে কোন খেলায় দেশ ভিত্তিতে কেন এসেছে জানিস ??? ঐ দেশকে সারা পৃথিবীর সামনে তুলে ধরার জন্য … তাহলে তো শুধু একা একা খেললেই পারতো তাই না … আর আজকের যত নামি দামি খেলা যেমন – ফুটবল , ক্রিকেট এসব খেলা যে কিভাবে একটা দেশকে সারা বিশ্বের কাছে নিজের দেশ কে রিপ্রেজেন্ট করে চিন্তাও করা যায় না … এই যেমন ধর পৃথিবীর মানুষ কি বাংলাদেশ কে চিনতো … এই ক্রিকেট দিয়েই তো চিনলো …

আমিঃ হুম তাহলে ক্রিকেট শুধু ঐ ১৫ কে না পুরো জাতি বা দেশকেই তুলে ধরে … ??? আজ যদি বাংলাদেশ বিশ্বকাপ জেতে তাহলে ওরা শুধু ১৫ জন ই বিশ্বকাপ জিতবে না … জিতবে পুরো জাতি … পুরো বাংলাদেশ …!!!

বন্ধুঃ অবশ্যই …

আমিঃ আচ্ছা বন্ধু তোমার কি মনে হয় না ৭১ এর জন্য পাকিস্থানের ক্ষমা চাওয়া উচিত ???

বন্ধুঃ হঠাত এ প্রসংগ ??? উচিত তো … ওরা যা করেছে তা তো যুদ্ধ নয় গনহত্যা … নির্মম গণহত্যা … ওদের এই গণহত্যা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল নিকৃষ্ট ঘৃন্যতম অপরাধ …

আমিঃ তাহলে যে তুমি ক্রিকেটে পাকিস্থান কে সমর্থন কর !!! আজ না পাকিস্থান নিয়ে কত লাফালাফি করলে !!!

বন্ধুঃ আরে ওটা তো ক্রিকেট … ক্রিকেটে সমর্থন করলেই কি পাকিস্থানকে সমর্থন করা হয় নাকি ???

আমিঃ কেন তুমি যে বললে ক্রিকেট শুধু ১১ জন এর খেলা না … পুরো জাতির খেলা … ক্রিকেট রিপ্রেজেন্ট করে পুরো জাতি কেই ??? বাংলাদেশ ক্রিকেট দল বিশ্বকাপ জিতলে তা হবে বাংলাদেশের জয় ??? ??? ??? ???

 

খন্ডন ২.৩: একজন পাকিস্তান সাপোর্টার কে যদি জিজ্ঞেস করি ভারত সাপোর্ট করেন না কেন – সেখানে তিনি অবশ্যই ভারতের বর্তমানে বাংলাদেশের সাথে অমানবিক আচরণের বিষয়টি তুলে আনবেন । সীমান্ত হত্যা, টিপাইমুখ সহ অনেক বিষয় আনবেন । তখন তাদের যদি বলা হয় – আপনি নিজেই তো রাজনৈতিক কারনে ভারত কে সাপোর্ট করছেন না – তো আমাকে কেন খেলার সাথে রাজনীতি মেশাতে নিষেধ করছেন ???

 

খন্ডন ২.৪: বাংলাদেশ খেললে সাপোর্ট দেন কেন ? নিজের “দেশ”, নিজের “রাষ্ট্র” জিনিসটা কি একটা পলিটিক্যাল এনটিটি না ?

 

যুক্তি ৩: পাকিস্তান ভালো খেলে/খেলা ভালো লাগে ।

 

খন্ডন ৩: নো কমেন্ট। ভালো লাগলে সাপোর্ট কর গিয়া । কিন্তু আমি বলবো তুমি খেলা বোঝ না । পাকিস্তান এমন বিশেষ কোন ভালো খেলে না । অস্ট্রেলিয়া-সাউথ -আফ্রিকা-ইংল্যান্ড এরা পাকিস্তানের থেকে অনেক ভালো টিম ।

 

যুক্তি ৪: পাকিস্তান প্রতিবেশী দেশ ।

 

খন্ডন ৪: ভারত-শ্রীলন্কা আরো নিকট প্রতিবেশী । এই যুক্তিতে পাকিস্তানের চেয়ে বেশি সাপোর্ট ভারত বা শ্রীলঙ্কা পাওয়ার যোগ্যতা রাখে ।

 

যুক্তি ৫: ধর্মীয় কারণ ।

 

খন্ডন ৫.১: বিশ্বকাপ ফুটবলে সৌদি আরব, ইরান, তুরষ্ক, তিউনিশিয়া সহ অনেক মুসলিম দেশ খেলে । সেখানে বেশির ভাগ লোককেই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা অথবা জার্মানি-ইটালি-স্পেন এসব দলকেই সাপোর্ট করতে দেখা যায় । সুতরাং তাদের এটা

ধর্মপ্রেম নাকি পাকি প্রেম সেটা অবশ্যই সন্দেহের বিষয় ।

 

খন্ডন ৫.২: পাকিস্তানিদের মুসলিম কীসের বিবেচনায় বলছেন ?? যারা অর্থের কাছে নিজের ব্যক্তিত্বকে বিসর্জন দেয়, যারা বল টেম্পারিং করে, যারা স্পট ফিক্সিং এ জড়িত থাকে, যাদের জীবনের প্রধান অনুষঙ্গ হল মদ আর নারী, যাদের দেশে প্রতিদিন বোমা হামলা হয়, যাদের দেশ গুগলে পর্ণ সাইট সার্চ করাতে নাম্বার ১ হয়েছে, যাদের দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় প্রতিদিন মানুষ খুন হয় , যাদের মানবতা বলতে কিছু নেই, যারা প্রতিনিয়ত আমেরিকানদের পা লেহন করে, যারা জঙ্গিবাদীর জন্য পৃথিবীতে কুখ্যাত, যারা আমাদের দেশের মা বোনকে ধর্ষণ করেছে, যারা ৩০ লক্ষ নিরীহ বাঙ্গালীকে হত্যা করেছে, যারা আজ পর্যন্ত আমাদের কাছে ক্ষমা চায়নি । এরা নাকি তাদের ধর্মীয় আদর্শের দল !!!!

 

যুক্তি ৬: ধান ভানতে শিবের গীত এর মত ভারত টেনে আনা ।

 

খন্ডন ৬: ভাব দেখলে মনে হয় ক্রিকেট পৃথিবীর দুইটা দেশই খেলে – ভারত আর পাকিস্তান । পাকিস্তানের বিরোধিতা করা মানেই নাকি ভারত সাপোর্ট করা !! এই জন্য নাকি তারা পাকিস্তান সাপোর্ট করেন !! হাউ ফানি !!!!!!!!

 

যুক্তি ৭: এতই যখন পাকিস্তান কে ঘৃণা করেন, ইংল্যান্ড তো ২০০ বছর এ দেশ শাসন করেছে । তাদের কিছু বলেন না কেন ?

 

খন্ডন ৭: প্রথমত ইংল্যান্ড ক্রিকেট টিম নিয়ে বাঙ্গালীদের আদিখ্যেতা নেই যে পাকিস্তানের মত তাদের ইংল্যান্ড এর কথাও মনে করিয়ে দিতে হবে । তাছাড়া ইংল্যান্ড ২০০ বছর অত্যাচার করেছে বলে পাকিস্তান সাপোর্ট করতে হবে এটা হাস্যকর নয় কি ??

 

যুক্তি ৮: পাকিস্তানের ক্রিকেট প্লেয়াররা তো আর গণহত্যার সাথে জড়িত ছিল না ।

 

খন্ডন ৮: ধরুন আপনার পরিবারের কোন সদস্যকে নির্মম ভাবে হত্যা করলো “এক্স” নামের একজন । তারপর সেই ব্যাক্তি একটা ক্রিকেট ক্লাব বানালো “এক্স ক্রিকেট ক্লাব” নামে যে ক্লাব কিনা ভাল খেলে । আপনার পরিবারের সদস্যকে হত্যাকারীর ক্লাবের প্লেয়াররা কিন্তু খুনি না । পারবেন আপনি সেই ক্লাবকে সাপোর্ট দিতে ?? আপনার পরিবার ধ্বংস করে দেওয়া লোকটার ছেলেকে পারবেন আপন বলে বুকে জড়িয়ে নিতে যেখানে ছেলেটি ক্ষমা চায়নি ?

 

যুক্তি ৯: বাপ চাচাদের পাপের ফল নেক্সট জেনারেশন বহন করবে কেন?

 

খন্ডন ৯: বহন করবে এই কারণেই যে তারাও তাদের বাপচাচাদের পাপের জন্য বিন্দু মাত্র দুঃখিত না। সেইটা যারা দেশের বাইরে থাকে তারা খুব ভাল জানে ।

 

যুক্তি ১০: ভারতের শেবাগ, সিধু বাংলাদেশ কে নিয়ে অবমাননাকর কথা বলেছেন ।

 

খন্ডন ১০: এইটা পাকিস্তান সাপোর্টের পক্ষে কোন যুক্তি হতে পারে বলে মনে করি না । এটা ভারত সাপোর্টের বিপক্ষে দেয়া যায় । তারপরও তাদের মনে করিয়ে দিতে হয় – রশীদ লতিফ বলেছিল – আফগানিস্তান বাংলাদেশের থেকে ভাল দল । শোয়েব আখতার লিখেছিল – বাংলাদেশের টেস্ট খেলার যোগ্যতা নেই । এরপর যদি আপনারা পাকিস্তান সাপোর্ট করতে পারেন – তো আপনারা সিধু আর শেবাগ কে সমালোচনা করার নৈতিক অধিকার হারিয়েছেন ।

 

( ফেসবুক থেকে সংগৃহীত )

 

Amit Pramanik সম্পর্কে

নিজের ব্যাপারে কিছু বলা মনে হয় সবসময়ই কঠিন। আসলে, প্রতিটা মানুষই তো স্বাভাবিক। আমিও তাই। পড়াশুনা করি, খাই, আড্ডা দেই, ঘুমাই, দুষ্টামি করি, মাঝে মাঝে এক আধটুক লেখা লেখির চেষ্টা করি আর মুভি দেখি। এইতো.... এভাবেই চলছে...... দুঃখ আছে, আনন্দ আছে...... হতাশা কিংবা বিস্বাদ সবই আসে মাঝে মাঝে...... কিন্তু, সময় তো আটকে থাকে না...... নতুন কিছুর অপেক্ষায় এভাবেই প্রতিদিন একটু একটু করে এগোতে থাকি সামনের দিকে..... " চাই সবচেয়ে বড় আকাশ নক্ষত্র আর ঘাস আর চাই চন্দ্রমল্লিকার রাত শুধু এইটুকুই জীবনের শেষ চাওয়া...... "
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে চিন্তাভাবনা, বিবিধ-এ। স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

15 Responses to পাকিস্তান সমর্থকদের যুক্তি ও তার খণ্ডন

  1. বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

    [বাইরে থেকে এসে কমেন্ট করছি।]

    অনেক কথাই বলার আছে!

  2. স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

    খুবই ভালো যুক্তিখন্ডন। ভালো লেগেছে খুব। :clappinghands:

    “ফেসবুকে থেকে সংগৃহীত” বলতে কী বোঝাচ্ছেন? লেখাটা কী আপনার নয়?

    • নিস্তব্ধ অমিত বলেছেনঃ

      না ভাই, লেখাটা আমার না । ফেসবুক থেকে পাওয়া । আমি শুধু চেয়েছি মানুষ এটা জানুক । তাই তুলে ধরা ।

      • স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

        হুম, কিন্তু, ব্লগে মৌলিক লেখা দেয়াটাই প্রত্যাশিত, তাই না?

        তুমি নিজের মতো করে কথাগুলো গুছিয়ে লিখতে পারতে। 🙂

        • নিস্তব্ধ অমিত বলেছেনঃ

          পারতাম, আসলে এ কথাগুলোই আমি লিখতে চাচ্ছিলাম । আর ফেবুতে ব্যাপারটা অনেক সুন্দর ভাবে লেখা ছিল । তাই , আমি আর লেখাটা কাটছাঁট করি নাই । যেভাবে ছিল সেভাবেই দিয়ে দিয়েছি । আর ভাইয়া, আমার এ পর্যন্ত দেয়া সব লেখাই মৌলিক । কিন্তু, এ লেখাটা শুধুই মানুষকে একটু সচেতন করবার জন্যে দেয়া । আর আমি তো লেখাটাকে নিজের বলে দাবি করি নাই । পরিষ্কার ভাবে বলে দিয়েছি , “ফেসবুকে থেকে সংগৃহীত”……

          • স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

            আমি কিন্তু তোমাকে কোন দোষ দেইনি। আমি তোমার লেখা পড়ি দেখে এটা জানি, তোমার লেখার হাত অনেক ভালো। তাই আশা করি যে, তোমার কাছ থেকেই সচেতনতামূলক লেখা আসবে। এ জন্যই বলা……
            🙂

  3. নিস্তব্ধ অমিত বলেছেনঃ

    ভাইয়া, আমি কিন্তু মাইন্ড করি নাই । আমি আসলে আমার জায়গাটা পরিষ্কার করতে চাইছি । আর আমি এটাও জানি, আপনি আমার লেখা পড়েন । আর আমি তো আপনাদের সবার চেয়ে অনেক ছোট । তাই কোনও ভুল হলে মাফ করে দিবেন ।

    • স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

      না না, ভুলের কোন ব্যপার না। আমি তোমার কথাটা পরিষ্কার বুঝতে পেরেছি। তুমি তো খুবই চমৎকার একটা উদ্দেশ্য নিয়ে লেখাটা দিয়েছো। এবং, উদ্দেশ্য পূরণেও তুমি সফল। কারণ, এখন থেকে কেউ এই কথাগুলো বললে উত্তরগুলো রেডিই থাকলো। :happy:
      আর সরবের সবাই তো একজন আরেকজনের কাছে নিজের প্রত্যাশার কথা বলতে পারি, কারণ আমরা সবাই একটা পরিবারের অংশ। ………সেখান থেকেই বলা। 🙂

      • নিস্তব্ধ অমিত বলেছেনঃ

        আচ্ছা ভাইয়া…… আমিও বুঝতে পারলাম । :happy:

        • বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

          স্বপ্ন’র সাথে একমত। সরব এ কিছু কাউকে বললে সেটা আসলে প্রত্যাশার ভিত্তিতেই বলা।

          যে কাউকে মডুরা ঢুকতে দেন না।

          সবার কাছেই প্রত্যাশা থাকে!

          ( আমার মন্তব্য দিচ্ছি )

  4. জ্ঞানচোর বলেছেনঃ

    লেখাটা আপনার না জেনে কষ্ট লাগলো। আবার ভালও লাগল। কারণ, আপনার লেখার হাত আরো ভাল। :dhisya:

    ( ফেসবুক থেকে নেয়া হলে, মূল লেখকের নাম দেয়াটা এবং লেখার লিংক দেয়াটা জরুরী। কারণ, এতে লেখকের লেখস্বত্ত্বের প্রতি সম্মান দেখানো হয়। আপাতত, এই সম্মাননাটা প্রতিটা লেখকেরই পাওনা বলে মনে হয়। )

    • নিস্তব্ধ অমিত বলেছেনঃ

      আসলে, এটা কারও বাক্তিগত লেখা না, একটা গ্রুপে এটা ছিল । সেখান থেকে তুলে দিয়েছি । আমি লেখকের খোঁজ পেলে অবশ্যই তা লিংক সহই দিতাম ।

  5. বোকা মানুষ বলেছেনঃ

    লেখক কে ধন্যবাদ জানাই লেখাটা ফেসবুক থেকে সংগৃহীত বলে স্বীকার করে নেবার জন্য।

    সরব কে অনুরোধ করবো লেখাটা সরিয়ে ফেলার জন্য কারন সরব এর নীতিমালায় প্রথমেই আছে লেখা মননশীল হতে হবে। এখন পর্যন্ত সরব এর যতগুলো লেখা এসেছে সব গুলোই সাধারন অর্থে মৌলিক। কোন কপি পেস্ট নয়।

    এক ধরনের যুক্তিতর্ক মুলক লেখা সবসময় শুধু বিতর্ক বাড়ায়। কোন কাজের কাজ হয় না। বরং আরো ঘৃণা বাড়ায়। সবটাই অযথা। এসবের জন্য অনেকগুলো ঝগড়াটে ব্লগ আছে যেখানে লেখক এসব লেখা নিয়ে বিস্তর বিতর্ক করতে পারেন। সরব এ মননশীল আচরণ প্রকাশ পাক, এটাই প্রত্যাশা করবো।

    খেলা নিয়ে রাজনীতি আর রাজনীতি নিয়ে খেলা- অনেক হয়েছে। চলুন মৌসুমি ভৌমিকের গান শুনি- বলতে হলে নতুন কথা চেনা পথের বাইরে চল।

    হাজার রকম মানুষ আছে এই দেশে। মুখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে, কিন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে ফাও খায়, অবৈধ সীট দখল করে থাকে, আবার প্রতিবাদ করলে ডাণ্ডা দিয়ে ঠাণ্ডা করতে চায়। এই দখলদার ভারতের সাপোর্ট করে না সৌদি আরবের সাপোর্ট করে তা নিয়ে অনেক ব্যথা হয়েছে।

    যা হয়নি তা হল দিনের পর দিন যে শিক্ষার্থী পাশের হাসপাতালের অসুস্থ রোগীর জন্য রক্ত দান করে কিংবা করতে উৎসাহী করে তোলে আরেকজন বন্ধুকে- সেই মানুষের কাজটাকে আরো প্রসার করা, কিংবা যে শিক্ষার্থী শীতের কাপড় জোগাড় করে প্রগতির পরিব্রাজক দল প্রপদ এর মত- তাকে সহযোগিতা করা।

    সম্প্রতি ব্রিটিশ কাউন্সিল এর জরিপে দেখা গেছে- বাংলাদেশের ৯৮ শতাংশ যুব গোষ্ঠী দেশের জন্য কোন ভালো কাজ করতে চায়।

    এখন আপনি বলুন কোন হতভাগা কোন দেশ কে সাপোর্ট দিলো তা নিয়ে রাতভর জেগে নোট লিখবেন নাকি-বাংলাদেশের দামাল ছেলেদের বিজয়ে- হোক না বছরে একবার- লাল সবুজ পতাকা কপালে বেঁধে টি এস সি তে উল্লাসের বৃষ্টি সৃষ্টি করবেন!

    • নিস্তব্ধ অমিত বলেছেনঃ

      বিতর্ক মননশীলতার সবচেয়ে বড় কয়েকটা মাধ্যমের একটা । তাহলে, কেন আপনি বলছেন যে, এ লেখা বিতর্ক সৃষ্টি করবে বলে এ লেখা মননশীল লেখা না ????? আর আমি তো কাউকে প্রভাবিত কিংবা শুধরে দেবার জন্যে এ লেখা দেই নাই । আমি চেয়েছি মানুষ জানুক, ঘটনা গুলো কীভাবে ঘটছে ।

স্বপ্ন বিলাস শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।