স্বগতোক্তি-১

দিন কাল কেমন যাচ্ছে বুঝতে পারছি না। পরীক্ষা চলছে। পরীক্ষার ৩ দিন আগে ছাড়া পড়তে মন বসে না। যদিও বা মন বসে, মন কে বেশিক্ষণ ধরে রাখা যাচ্ছে না। তাছাড়া আরো একটা লক্ষণীয় ব্যাপার আছে, তা হলো, পরীক্ষার ঠিক দুই দিন আগে কোন না কোন গুরুত্বপূর্ণ প্রোগ্রাম থাকে। যেমন, প্রথম পরীক্ষার দুই দিন আগে গান্ধর্বলোকের অর্কেস্ট্রা ছিল রবীন্দ্র সরোবরে…আমার জীবনের স্মরণীয় এক মুহূর্ত! তন্ময় হয়ে ছিলাম পুরোটা সময়।  গান্ধর্বলোক নিয়ে কিছু লেখার ইচ্ছা আছে…ব্যস ওই পর্যন্তই। লেখা আর হচ্ছে না। দ্বিতীয় পরীক্ষার দুই দিন আগে ছিলো TEDxDhaka 2012, যার মটো ছিলো, “Different Bangladesh”। এটাও অসাধারণ ছিলো! চমৎকার! চমৎকার!! এটা নিয়ে ভাবছি কিছু লেখা দরকার(হায়)!  তৃতীয় পরীক্ষার বাকি আছে আর দুই দিন। আজকে AIUB ক্যাম্পাসে অ্যান্ড্রোয়েডের উপর ESAB(Engineering Student Association of Bangladesh) এর দ্বিতীয় সেমিনার ছিল, মিস করার প্রশ্নই আসে না! এবং যথারীতি এটাও ছিল অসাধারণ।

আজকের লেখালেখির বিষয় যদিও “ESAB” নয়। আসলে দেখলাম পড়ালেখাও কিছু করছি না, কাজের কাজও কিছু করছি না। তাই আসলে কি করি এই ব্যাপারটাকে বোঝার জন্য ভাবলাম কি করি তা লিখে রাখি। মানে কি করি, কি দেখি, কি শুনি, কি শিখি, কি জানি, কি ভাবি, এইসব আর কি! এক কথায় “মুক্ত কথন”।

তো শুরু করা যাক… 🙂

অনুপ্রেরণীয়ঃ

আজকে একটা খবর পড়ে খুবই ভাল লাগলো। ঢাকার নটর ডেম কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক সম্পন্ন করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএসে উত্তীর্ণ হয়ে শুরুতে নিওরোসার্জন হিসেবে পেশাজীবন শুরু করেছিলেন এ এস এম আমজাদ। পরে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জনস্বাস্থ্যে স্নাতকোত্তর শেষ করে ২০০৩ সালে জেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন তিনি। কিন্তু আর সবার মতো প্রথাগত উন্নত জীবনের পথে না হেঁটে তিনি প্রত্যন্ত গ্রামে নিজের কর্মজীবন শুরু করেন। একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জনস্বাস্থ্যে স্নাতকোত্তর শেষ করে ২০০৩ সালে জেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন তিনি। গত ২৪ জানুয়ারি ‘গেটস ভ্যাকসিন ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড’ এর জন্য মনোনীত হবার পরে এই নিবেদিত প্রাণ মানুষের কথা অবশেষে আমরা জানতে পারি।

 

কি করেছিলেন তিনি? কেনই বা সারা পৃথিবী থেকে মনোনীত ১১৭ জনের মধ্যে শুধু ওনাকেই এবার বেছে নিলো বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন, বিশ্ব স্বাস্থ্য অ্যাওয়ার্ড এর জন্য? প্রথম আলোতে প্রকাশিত খবরের মাধ্যমে জানা গেল, আমজাদ তার সহকর্মীদের নিয়ে প্রতিটি গ্রামের গর্ভবতী নারীদের একটি তালিকা করেন। কোন মাসে কোন গ্রামে কোন কোন নারীর সন্তান জন্ম নেবে, তার একটি তথ্যভান্ডার গড়ে তুললেন। সন্তান হওয়ার পরই তাঁরা হাজির হতেন। কেউ টিকা থেকে বাদ পড়ল কি না, তা জানতে একটি মূল্যায়ন কৌশলও (চেকলিস্ট) নিজে থেকে তৈরি করলেন তিনি।আমজাদের নেওয়া এই কৌশল প্রয়োগের দুই বছরের মাথায় টাঙ্গাইলে টিকা নেওয়া শিশুদের সংখ্যা ২০ দশমিক ৪ শতাংশ বেড়ে যায়। সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির পক্ষ থেকে এই কৌশল ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও হবিগঞ্জ জেলায় প্রয়োগ করা হলো। ওই দুই জেলাতেও টিকাদানের হার ১৭ দশমিক ৪ ও ১৭ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়ে গেল। বাংলাদেশে শুরু হওয়া এই কৌশল অন্যান্য স্বল্পোন্নত দেশের জন্য অনুসরণীয় হতে পারে বলে মনে করেছে গেটস ফাউন্ডেশন।

বিল গেটস তার নোটে লেখেন, “Dr. Hossain was chosen from among 117 nominees and will receive $250,000—most of which will be donated to a charity of his choice—in recognition of his success increasing immunization coverage in two districts of Bangladesh that had historically low vaccination rates. What especially impressed me about Dr. Hossain’s approach is how simple, yet effective, the interventions were.”

আমজাদ সাহেব যদি গেটস ফাউন্ডেশোনের এই অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত নাও হতেন আমার কোন দুঃখ থাকতো না যখন আমি জানতাম আমার দেশে এরকম নিবেদিত প্রাণ একজন ডাক্তার আছেন! এত চমৎকার একজন মানুষ আছেন, যিনি এখনো ভালবাসেন, এখনো স্বপ্ন দেখেন এবং এখনো লড়াই করে বাঁচেন!

ডক্টর আমজাদের কথা পড়ে আমার এক বড় ভাইয়ের কথা মনে পড়ে গেল… সবুজ কুন্ড, আমাদের সবুজ দা। দাদা বুয়েটের সিএসই ডিপার্টমেন্ট থেকে বের হয়ে তল্পিতল্পা নিয়ে সোজা নড়াইলে চলে যান, সেখান থেকেই নিজের কোম্পানির কাজ করতে থাকেন। বাংলাদেশের সেরা দশজন ফ্রিল্যান্সারের মধ্যে দাদা একজন!

আইডিয়াঃ

Zipcar এর নাম শুনেছেন কেউ? অথবা Wheelz? খুবই ইন্টারেস্টিং একটা কনসেপ্ট! কার শেয়ারিং। মানে গাড়ি কেনার বিকল্প এবং রেন্ট-এ-কার এর প্রথাগত যে কনসেপ্ট, ওইটার ও বিকল্প। আইডিয়াটা হচ্ছে, ধরেন আমার একটা গাড়ি আছে। আমি গাড়ি নিয়ে আমার প্রয়োজনীয় গন্তব্যে গেলাম। তারপর ওইখানে যতক্ষণ আমি ব্যস্ত থাকবো ততক্ষণ আমার গাড়িটা অলস পড়ে থাকবে। কিন্তু আমি Zipcar এর কার শেয়ারিং নেটোয়ার্কে কানেক্টেড থাকলে যতক্ষণ আমি আমার গাড়িটা ব্যবহার করছি না ওইটুকু সময়ের জন্য ভাড়া দিতে পারবো! এবং যেহেতু পুরা ব্যপারটা একটা নেটওয়ার্ক বা কমিউনিটির মাধ্যমে হ্যান্ডেল করা হচ্ছে সেহেতু সিকিউরিটির ব্যাপার নিয়েও চিন্তা করা লাগছে না বরং বলতে গেলে আকাশ থেকে আয় হচ্ছে! :penguindance:

আর  Wheelz  হচ্ছে ক্যাম্পাস ভিত্তিক একটা কার শেয়ারিং নেটওয়ার্ক যেখানে এবার  Zipcar $13.7 মিলিয়ন ডলার ইনভেস্ট করছি। একটা ভিডিও শেয়ার করছি, দেখার পরে শেয়ারিং এর আইডিয়াটা ক্লিয়ার হয়ে যাবে আশা করি…

ইভেন্টঃ

# টেড ২০১৩’র স্পিকার সিলেকশনের জন্য এবার ওয়ার্ল্ডওয়াইড অডিশন হবে সিলেক্টেড ১৪ টা শহরে। অডিশনের জন্য ইংরেজিতে ৩-৬ মিনিটের একটা স্পিচ দিতে হবে। এবার TEDxDhaka’র পরে আমি খুবই অনুপ্রাণিত। এবার বাংলাদেশ থেকে স্পিকার দেখলে ভাল লাগবে!

# প্রতিটি বাঙালির মনে শুদ্ধ বাংলা ভাষা চর্চার প্রত্যয় ছড়িয়ে দিতে ১০ থেকে ১৬ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের নিয়ে আয়োজিত হতে যাচ্ছে শুদ্ধ বাংলা বানান বিষয়ক প্রতিযোগিতা “বাংলার পণ্ডিত”। ফেসবুক পেইজঃ https://www.facebook.com/banglarpandit। ওয়েব সাইটঃ http://www.banglarpandit.com/

# লালন দোলউৎসব ২০১২। মার্চের ৭-৯। এবারো যেতে পারবো না। এবারের কারণ পরীক্ষা।

#১৩-১৮ বছর বয়সীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণঃ গুগল বিজ্ঞান মেলায় অংশগ্রহণেচ্ছুদের জন্য কর্মশালা। আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি, সোমবার, দুপুর ৩টা থেকে বিকাল সাড়ে ৬ টা। ফেসবুক ইভেন্ট পেইজঃ https://www.facebook.com/events/218587821572285/

# হুইল চেয়ার র‍্যালি এবং গণ সমাবেশ। উদ্দেশ্যঃ ‘ভেঙ্গে যাক সকল বাঁধা, তৈরী হোক চলাচলের সমতা’ ।  সাবরিনা আপুর একটা পোস্ট আছে সরবে এটা নিয়ে, লিঙ্কটা খুঁজে পাচ্ছি না! 🙁 ফেসবুক ইভেন্ট লিঙ্কঃ https://www.facebook.com/events/327979777240172 

 

# ইয়োথ লিডারশীপ সামিট ২০১২: এপ্রিল ২৬-২৮। অনলাইনে অ্যাপ্লাই করা যাবে। যাবার ইচ্ছা আছে কিন্তু এত কথার উত্তর দিয়ে অ্যাপ্লাই করার মতো পর্যাপ্ত তেল পাচ্ছি না 🙁

শুনলাম/দেখলামঃ

এক সিনিওর ভাইয়ের শেয়ার থেকে দেখলাম। জাফর ইকবালের গাওয়া গান। আমার ছোটবেলার খুব প্রিয় একজন শিল্পী, এখনো প্রিয়! 🙂

আর ফেসবুকে অক্ষর এবং অন্য অনেককে দেখলাম শেয়ার দিচ্ছে একটা ফানি ভিডিও =)) দেখে মনে হলো ব্যাঙের আর দোষ কী, সেন্টিমেন্ট নিয়ে ছিনিমিনি কাহাতক আর সহ্য করা যায়! 😛

এবার মনে হয় একটু পড়তে বসা দরকার 😳

নূরবাহার ঈয়াশা সম্পর্কে

যেতে হবে সূর্যের কাছাকাছি, দীপ নেভার আগে...
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে চিন্তাভাবনা, হাবিজাবি-এ এবং ট্যাগ হয়েছে স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

14 Responses to স্বগতোক্তি-১

  1. নিশম বলেছেনঃ

    নূরবাহার ঈয়াশা নামের কেউ যে এতো ঝরঝরে লেখা লিখতে পারে, ধারণাই ছিলোনা ! আমি তো জানতাম, কঠিন কঠিন টেকি লেখা ছাড়া তার হাত থেকে লেখাই বের হয়না 8)

    এই সিরিজ চলুক, শেষের পার্ট তো পুরাও অস্থির, সারা সপ্তাহের সব খোজ খবর !!! আর, প্রথম খবরটা শুনে আজকে সকালে ব্যাপক মন ভালো হয়ে গিয়েছিলো 🙂

    ভাই-বোন উভয়ের জইন্য শুভকামনা (পরীক্ষার জন্য আর কী!)

  2. অনাবিল বলেছেনঃ

    ঝরঝরে লেখা…ভালো লেগেছে! অনেক খবর… 🙂

    সবুজদার কাজ নিয়ে জানতে ইচ্ছে করছে……

    কতকিছু একসাথে,কিন্তু একসাথে কত দিকে ছোটা যাবে??? আর আমাদের দেশে সবকিছু রাজধানী কেন্দ্রিক… 🙁

    • নূরবাহার ঈয়াশা বলেছেনঃ

      আবজাব কথাবার্তা! 😀
      দেখি, সবুজ দা হয়তো আসবেন আবার কোন লেখায়! আর রাজধানী তে বসেও তো মানুষের জন্য করা যায়… শুধু চিন্তা ভাবনা টা মনের মধ্যে থাকতে হয়! 🙂

  3. সামিরা বলেছেনঃ

    শেষের ভিডিওটা দেখছিলাম বেশ আগে। :happy: বেচারা!

    বানান প্রতিযোগিতা দেখে অ্যাপ্লাই করবো ভাবলাম, তারপর দেখি বয়স নাই। 🙁

    এত্ত কিছু, কী রেখে কিসে কমেন্ট করবো! অনেক কিছু জানলাম। আপনার পরীক্ষার দুইদিন আগের কাহিনী পড়ে মজা পাইছি। 🙄

  4. রাইয়্যান বলেছেনঃ

    দারুণ লেখা! ডা. আমজাদ তো পুরাই বস পাবলিক! অনুপ্রাণিত!! পরীক্ষা না থাকলে ইভেন্টগুলোর কয়েকটিতে অংশ নেয়ার চেষ্টা করতাম. . 🙁 ব্যাঙ বাবাজি রক্স!! 😛

    অফ টপিকঃ শব্দটা আসলে ‘স্বগতোক্তি’ না? আমি কনফিউজড 🙁

  5. অবন্তিকা বলেছেনঃ

    অনেকগুলো টপিক একসাথে এতটুকু লেখায়। পরীক্ষা থাকলে মাথায় পরীক্ষা বহির্ভূত কিছু আসলেই বেশি আসে। ভালো লাগলো। সিরিজ চলুক। পরীক্ষার জন্য শুভকামনা। 🙂

  6. সায়েম বলেছেনঃ

    হুমমমমমমমমমমমমমমমমম 🙂 😀

সামিরা শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।