বাংলাদেশ বনাম ( ভারত-পাকিস্তান )

খুব ছোট বেলা থেকেই আমি খুব খেলাধুলা প্রিয় মানুষ, আব্বুর সাথে খেলা দেখতে দেখতে আমিও প্রায় সব খেলারই ভক্ত হয়ে যাই। সাধারণত যা ঘটে ,বাবা যেই দলের সাপোর্ট করে ছেলেও তাই করে ।আমিও করতাম। আব্বুকে দেখতাম মোহামেডান এর সাপোর্ট করত , আমিও মোহামেডান।আব্বু ব্রাজিল আমিও ব্রাজিল। আম্মু আবার ছিল আর্জেন্টিনার ঘোরতর ভক্ত। আম্মুর বিপক্ষে থাকতে হবে এই চিন্তায়ই মনে হয় ব্রাজিলকে আরও বেশি সাপোর্ট করতাম আমি আর আব্বু। আর যখন আম্মু দেখত ব্রাজিল হেরে যাইতেছে আর আমি বোকার মত কাদতেছি তখন আম্মুও ব্রাজিল হয়ে যাইত, আহারে আমার আম্মুটা 😛 ।

যাই হোক যার জন্য এই লেখাটা শুরু করেছি, আব্বু ক্রিকেটে পাকিস্তানের সাপোর্ট করত এবং এখনও করে। এমনকি আম্মুও করত(এখন মনে হয় আর করে না , ছেলে দ্বারা প্রভাবিত )।
কিন্তু আমি জীবনে কখনও পাকিস্তানের সাপোর্ট করি নাই। জানিনা কেন,তারপরও আব্বু-আম্মু দুজনেই পাকিস্তানের সাপোর্টার হওয়া সত্ত্বেও আমি তখন ভারতকে সাপোর্ট করতাম। হয়ত ছোটবেলা থেকেই বই পড়ার অভ্যাস ছিল আর মুক্তিযুদ্ধের অনেক গল্প শুনেছি তখন, তাই কখনই পাকিস্তানকে ঘৃণা ছাড়া অন্য কিছু করিনি।পাকিস্তানকে দেখতে পারতাম না কখনই, এখনও পারি না।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে খেলার সাথে যুদ্ধ যায় কি ? আমার উত্তরঃ না যায় না , তবে একটা ব্যাপারে আমার আপত্তি আর তা হলঃ ” পাকিস্তান সরকারের উচিত ছিল বাংলাদেশের কাছে অন্তত ক্ষমা চাওয়া”।
এই বিশ্বায়নের যুগে হয়ত একটা দেশের সাথে সমস্ত সম্পর্ক বিছিন্ন করা ঠিক না এবং কুটনৈতিক কারণে কেউ তা করবেও না।কিন্তু যেখানে পাকিস্তান তার কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত না, লজ্জিত না, সেখানে ঐ দেশের মানুষকে আমার আপন করে নিতে লজ্জা লাগাটাই স্বাভাবিক। যতদিন না পাকিস্তান আমাদের কাছে ক্ষমা চায় ততদিন আমি পাকিস্তানকে দেখতে পারবনা তা যে যাই বলুক না কেন। যেখানে পাকিস্তানি জনগণ ( ইমরান খান, হামিদ মীর ) পর্যন্ত চায় সরকার ক্ষমা চাক সেখানে আমরা বাংলাদেশি হয়ে কেন ক্ষমা আশা করব না ??

এবার ভারত প্রসংগঃ বলেছিলাম না আমি ভারত সাপোর্ট করতাম?  হুম করতাম কারণ তখন বই পত্রে পড়তাম ভারত বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে সহায়তা করেছে। তাই হয়ত ভারতের প্রতি কৃতজ্ঞতাবোধ ছিল। কিন্তু যখন থেকে একটু রাজনীতি, অর্থনীতি বুঝতে শিখেছি তখন থেকে ভারতের প্রতিও কোন শ্রদ্ধাবোধ নাই। মুক্তিযুদ্ধের সাহায্য অস্বীকার করি না কিন্তু যা নিজের চোখ দিয়ে দেখছি তা তো অবিশ্বাস করা যায় না। বন্ধুপ্রতিম (!!!!) দেশটি আমাদের কত ভাবেই না উপকার করে চলেছে (!!) সীমান্তে হত্যা, ফারাক্কা বাঁধ, টিপাইমুখ বাঁধ, তিস্তা চুক্তি, আরও অনেক কিছুই হয়ত যা এই ছোট মস্তিষ্কের ধরা ছোঁয়ার বাইরে। আর খেলার ময়দানের কথা নাই বা বললাম ভারতীয় টিম যেভাবে বাংলাদেশ টীমকে অপমান করেছে তা তো বলার বাইরে। শেহওয়াগের ঐ কথা গুলো তো ভুলি নাই, অবশ্য সাম্প্রতিক ইউনুস খান তাকেও এক কাঠি ছাড়িয়ে গেছেন, আর সিধুর কথা নাই বা বললাম, জোকার একটা ! তাই এই অসাধারণ বন্ধু(!! ) দেশটিকেও সাপোর্ট করি না, করবও না যতদিন না তারা বাংলাদেশের উপর তাদের অন্যায় আবদারগুলো চাপিয়ে দেওয়া বন্ধ না করে। তাদের সব পণ্য বর্জন করার যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাচ্ছি ,আশা করি হয়ে যাবে।

শেষ কথাঃ খেলা খেলাই, এটার সাথে রাজনীতির কোন সম্পর্ক নাই। আসলেই নাই কিন্তু বাংলাদেশ কোন রাজনীতি না। নিজ দেশকে শুধু রাজনীতি দিয়ে বিচার করা ঠিক না। যেই পাকিরা বাংলাদেশের মাথাটা কেটে নিতে চেয়েছিল, তাদেরকে কেন ক্ষমা চাওয়া ছাড়াই ক্ষমা করে দিচ্ছেন?? ভুল বললাম, মাথায় তুলে নাচছেন!!! আর যারা এখন ( ভারত ) আমাদের পঙ্গু করে দিতে নেমেছে , আমদের ভাই বোনদের সীমান্তে পিটিয়ে মেরে বীরত্ব দেখাচ্ছে আর কোন রকম পাত্তাই দিচ্ছে না আমাদের চাওয়া পাওয়া গুলোকে তাদের জন্যই বা উল্লাস করেন কিভাবে?? খেলা খেলাই কিন্তু ভাই বাংলাদেশটাও কিন্তু বাংলাদেশ । আমার মাটি, আমার ফসল। আমার জন্ম এখানে তাই বাংলাদেশটা আমার। তাই আমার সাথে অন্যায় করতেই থাকবে আর আমি শুধু সইব না সাথে তাদের জন্য নাচবও এটা তো হতে পারে না। নাকি পারে ??? এটার উত্তর আপনারাই ভালো জানেন। ছোট মাথা, সামান্য বুঝি, তারপরও আগে নিজের দেশের সম্মানটা রক্ষা করার চেষ্টা করব, তারপর বাকী কিছু।

অক্ষর সম্পর্কে

স্বপ্নবাজ মানুষ একজন। আশাবাদ আর নিরাশার দোলাচালে আশাকেই শেষ পর্যন্ত সঙ্গী করতে চাই। আর স্বপ্ন দেখি একদিন দেশের জন্য কিছু করার, স্বপ্ন দেখি ছোট্ট করে হলেও কিছু একটা করার যা একটা প্রজন্মের গতিপথ পরিবর্তন করবে এবং অবশ্যই সেটা যেন হয় ইতিবাচক কোন পরিবর্তন। এখন পড়াশোনা করছি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে, কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগে। গণনা যন্ত্রের উপর পড়াশোনা করছি ঠিকই কিন্তু যন্ত্র শব্দটাই আমার কাছে বিরক্তিকর। ফেসবুক লিঙ্ক- www.facebook.com/akkhar21
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে চিন্তাভাবনা-এ এবং ট্যাগ হয়েছে , , , স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

14 Responses to বাংলাদেশ বনাম ( ভারত-পাকিস্তান )

  1. রাইয়্যান বলেছেনঃ

    “ছোট মাথা, সামান্য বুঝি, তারপরও আগে নিজের দেশের সম্মানটা রক্ষা করার চেষ্টা করব, তারপর বাকি কিছু।” কঠিনভাবে সহমত।

    অফ টপিকঃ বানান এবং বিরাম চিহ্ন। আফারা আইসে কিলানোর আগেই ঠিক কইরা ফেলাও! 😀

  2. বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

    যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চান, তাহলে যারা মূলত যুদ্ধটা করেছিল, বাংলাদেশের মাথাটা কেটে নিতে চেয়েছিল, তাদেরকে কেন ক্ষমা চাওয়া ছাড়াই ক্ষমা করে দিচ্ছেন?? ভুল বললাম, মাথায় তুলে নাচছেন!!!

    এইটার মানে বুঝি নাই। আর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চাবার বিষয়ের সাথে কোন সম্পর্ক আছে বলে মনে করি না।

    বেশ স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে লিখছ। আমি ব্যক্তিগত ভাবে আনপ্রোডাক্টিভ বিতর্কে যেতেই চাই না। পাকিদের পছন্দ করি না। ভারতীয়দেরও না।

    এই জাতীয় বিতর্ক আমাদের পেছনেই টানবে। আমাদের উচিৎ হবে এগিয়ে যাবার চেষ্টা করা।

    • অক্ষর বলেছেনঃ

      “যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চান, তাহলে যারা মূলত যুদ্ধটা করেছিল, বাংলাদেশের মাথাটা কেটে নিতে চেয়েছিল, তাদেরকে কেন ক্ষমা চাওয়া ছাড়াই ক্ষমা করে দিচ্ছেন?? ভুল বললাম, মাথায় তুলে নাচছেন!!!”

      আমি মনে হয় ভাইয়া ব্যাপারটা ঠিক বোঝাতে পারিনি,যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এর সাথে এটা সম্পর্কিত না, আমি যা বোঝাতে চেয়েছি তা হল, আমরা যদি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করতে পারি ( যা অবশ্যই হবে ) তাহলে পাকিদের ক্ষমা চাইতে বাধ্য করতে কেন পারব না? আর যদি তারা ক্ষমা না চায় তাহলে তাদেরকে এভাবে সমর্থন করা আমার পছন্দ না ।

  3. সামিরা বলেছেনঃ

    অনেক ভাল লিখছো ভাইয়া।

  4. শারমিন বলেছেনঃ

    :thinking:

  5. স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

    প্রতিটা কথার সাথে সহমত। খেলা দেখতে গিয়ে আমি হত্যাকারীদের ও তাদের স্বজনদের মাফ করে দিতে পারি না।

  6. ফিনিক্স বলেছেনঃ

    ভারত-পাকিস্তান কাউকে সাপোর্ট করি না। প্রায় এক যুগের বেশি সময় পার হলো ওদেরকে সাপোর্ট করা ছেড়ে দিছি।
    আমি আবার একটু ব্যতিক্রম। মারামারি টাইপ টিম সাপোর্ট করি না, ঝগড়াঝাটি পছন্দ না। তাই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দুইটারেই ডিসলাইক। এদের সাপোর্টাররা খালি নিজেদের জাহির করতে চায়। :haturi:

  7. অনাবিল বলেছেনঃ

    চমৎকার লিখেছো…… 🙂 :clappinghands:

অনুজ শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।