শুভ জন্মদিন !!!!!!!!

কোথায় যেনও আজ ১২ জুলাই তারিখটা দেখে একটা মধুর স্মৃতি আমাকে ছুঁয়ে গেল, কিছুটা nostalgic হয়ে গেলাম। আমার জন্মদিন ১১ জুলাই , কিন্তু মজার ব্যাপের হচ্ছে আমার এই জন্মদিনের তারিখটা আমিই খুঁজে বের করেছিলাম।

আমার আব্বুর একটা দারুণ অভ্যাস ছিল। আমাদের তিন বোনের জন্মের তারিখ, সময়, দিনক্ষণ সব তাঁর প্রিয় একটা dairy তে লিখে রাখতেন, কোন এক অজ্ঞাত কারনে আমার নোট গুলো আব্বু কালো রঙের একটা ডাইরিতে তুলে রাখে, আপু আর আমার ছোট বোনের টা আলাদা একটা হলদে রঙের ডাইরিতে তুলে রাখেন। আমার আব্বু আম্মু সত্যিকার অর্থে অনেকটা আদ্দি আমলের, জন্মদিন তন্মদিন পালনের ব্যাপারে আগ্রহ একটু কম ই!! ঢাক ঢোল পিটিয়ে জন্মদিন পালন করাটা তাদের যেমন পছন্দ ছিল না, তেমনি আমাদের ও নেই।

যাই হোক, যতদূর মনে পড়ে আমি তখন ক্লাস ওয়ান কি টু তে পরি, একদিন বাসার শেলফ ঘাটতে গিয়ে কালো রঙের একটা ডাইরি আবিষ্কার করি। স্বভাবতই(!!)ডাইরি জিনিসটা মানুষের personal হয়, আর সে জন্যই সে দিকে ঝোঁকটাও একটু বেশিই…… :P……অতঃপর ডাইরি খুললাম এবং আবিষ্কার করলাম, আমার জন্মদিন ১২ জুলাই নয়, ১১ জুলাই!!! ততদিনে কয়েক বার আমার জন্মদিন পালন ও করা হয়ে গেছে ১২ জুলাই এ!!! আমি কি পরিমাণ shocked হয়েছিলাম ওই নোট দেখে তা আর কি বলব,সে কি আমার কান্না!!!!!!!

আম্মুর তো বিশাল এক ধমক,” আরে কি হইছে!! ভুল করেই তো হইছে, কেও তো আর জেনে করে নাই!!”……কে শোনে কার কথা!! কিন্তু ভালো লাগছিল এটা ভেবে যে, আমার সত্যিকারের জন্মদিনটা তো আমি জানতে পেরেছি…… 😀

আমার ভুল শেষ জন্মদিনে আব্বু একটা বই গিফট করেছিল, বইটা ছিল রবার্ট লুই স্টিভেন্সন এর, বাংলায় অনুবাদ করা “বোতল শয়তান” আর “সাইলাস মারনার”। তখন আমি এতোই ছোট যে,লাইন টেনে পরতে পারতাম না, পেন্সিল দিয়ে টান টান দিয়ে দিয়ে পরতে হত।বই দেখে তো আমি মহা খুশি, অমন করেই পড়া ধরলাম।(আর এখন পিটালেও পড়তে বসি না!! 🙁 ) আমার এ কাণ্ড দেখে আম্মু আব্বুকে বকা দিয়েছিল কেন এমন বই আনল যে আমি পরতেও পারি না, পড়ে শোনাবার মত ও না। ক্লাস ফাইভে পড়াকালীন ” হ্যামিলনের বাশিওয়ালা” বইটা পাই আর আব্বুর প্রথম উপহার দেয়া সেই বইটা পড়বার মতো জ্ঞান ও আমার হয়। বই দুটো আমার সেই ছোট মনে দাগ কেটে গিয়েছিল।

সময় পেলে বই দুটো এখনও আমি পড়ি। এখন ও আমি স্বপ্ন দেখি, সাইলাস এর খুঁজে পাওয়া ম্যারি নামের ছোট্ট সেই মেয়েটা আমি আর বুড়ো হয়ে যাওয়া সাইলাস আমার বাবা যার হাত ধরে ম্যারি যেমন তার জন্মদাতা পিতা মাতাকে ফিরিয়ে দিয়ে তার পালক বাবার কাছে থেকে যায় তেমন করে  আমিও আমার বাবা আর মায়ের কাছে থেকে যাবো সব কিছুকে ফিরিয়ে দিয়ে ছোট্ট সেই আমি হয়ে…… কিংবা হ্যামিলনের সেই খোঁড়া ছেলেটার মতো করে বলবো” আমি যাবো ওই পাহাড়ের ওপারে, যেখানে ওরা সবাই গেছে ,যে খানে রংধনুরা খেলা করে ফুলের সাথে, যেখানে কোন কষ্ট নাই, সবাই শুধু খেলা করে, ফুল খেলে, পাতা খেলে,প্রজাপতিরা খেলে,বাঁশিওয়ালা কি আবার এসে নিয়ে যাবে না আমাকে ??!!……”

স্রোতস্বিনী সম্পর্কে

স্রোতস্বিনীর বয়ে চলা ঢেউয়ের মত হতে চাই,সৃষ্টিশীল স্রষ্টাদের মাঝে থাকতে ভাল লাগে,ভালবাসি মাকে,বাবাকে,আমার আদুরে বোনকে আর পাশে রাখি বই বন্ধুকে। হতে চাই অনেক কিছু,হতে পারি অল্পকিছু। চেষ্টাটাই বা কম কিসে!!!
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে হাবিজাবি-এ এবং ট্যাগ হয়েছে , স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

17 Responses to শুভ জন্মদিন !!!!!!!!

  1. বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

    সরব এ স্বাগতম!

    আমার সার্টিফিকেট এর ডেঈট আর রিয়েল ডেঈট আলাদা! 🙁

    পিচ্চিকালের সামান্য গিফটও অন্যরকম।
    আমি সেই দিন তিনগোয়েন্দার ভলিউম ওয়ান নিয়ে পুরাই নস্টালজিক হয়ে গেছিলাম! সেই দিনের দিনগুলি!

  2. সামিরা বলেছেনঃ

    হাহা। আহা রে! আমার বড় বোনেরও প্রায় একই অবস্থা, ওর জন্মদিন সবাই জানে আসল জন্মদিনের পরদিন। 😀 এইটা নিয়ে ও কান্নাকাটি করে নাই অবশ্য! 😛
    :welcome:

    • স্রোতস্বিনী বলেছেনঃ

      আমি একটু ছিঁচকাঁদুনে টাইপের, অল্প কিছুতেই কান্নাকাটি করি,এমন কি খবরের কাগজের নিউজ পড়ে, ব্লগের লেখা পড়ে ও 😛
      ধন্যবাদ অভিনন্দনের জন্য 🙂

  3. অনাবিল বলেছেনঃ

    স্বাগতম সরবে!

    আমার আসল আর সার্টিফিকেইট জন্মদিন সেইম…
    সবাই দেখছি স্মৃতিচারণ করছে বই নিয়ে… আমার ও ইচ্ছে আছে এই নিয়ে কিছু লেখার………

  4. শারমিন বলেছেনঃ

    :welcome: আমি নিজে নতুন তারপরেও তোকে স্বাগতম জানালাম 😛

  5. অবন্তিকা বলেছেনঃ

    :welcome:

  6. স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

    সরব-এ স্বাগতম। :welcome:

    আহ, ছোটবেলায় বই পড়ার কী নেশাটাই না ছিলো! কম্পিউটারের সামনে বসে থেকে সেই আমিই এখন বেশিক্ষণ মনযোগ বসাতে পারি না বইয়ের পাতায়…… 🙁

    • স্রোতস্বিনী বলেছেনঃ

      ধন্যবাদ অভিনন্দনের জন্য…… 🙂
      জী ভাইয়া,সবার একই কন্ডিশন……একটু বড় লেখা হলে পিসি থেকেও উঠে পরি,নেশাটা একেবারে ছুটে গেছে…… 🙁
      খুব খারাপ লাগে।

  7. নিশম বলেছেনঃ

    আমার সার্টিফিকেটের ডেট আর আসল ডেট একই, আর তা হলো ১২ই জুলাই 🙂 হি হি হি হি

    লেখা পড়ে পুরান কথা মাথায় টোকা দিয়ে গেলো :crying:

    • স্রোতস্বিনী বলেছেনঃ

      😀 ….. ফেবুতে দুইজন ফ্রেন্ড আছে যাদের জন্মদিন ১১ জুলাই!!!খুব মজা পাই আমরা একজন আরেকজনকে wish করতে।আপনার টাও মনে থাকবে…… 🙂

  8. ফিনিক্স বলেছেনঃ

    :welcome:
    ইশ, সেই ছোট্টবেলার দিনগুলো কতই না মধুর ছিল! সব মনে পড়ে গেল। 🙁

  9. বাবুনি সুপ্তি বলেছেনঃ

    :welcome:

  10. নোঙ্গর ছেঁড়া বলেছেনঃ

    সাইলাস মারনার আর বোতল শয়তান –বইটা আমার অনেক মজা লেগেছিলো।

    জন্মদিনের গল্প শুনে মজা পেলাম। আমার আব্বুও ডায়েরিতে লিখে রেখেছিলেন আমাদের সবার জন্মদিন। আমি আবার সেইটা অনেকবার রি-চেক করেছিলাম আমার হিসাব সব ঠিকঠাক মতন আছে কিনা এটা শিওর হবার জন্য 😀

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।