মুভিতাঃ অ্যামেজিং স্পাইডার ম্যান – রিভিউ

দি অ্যামেজিং স্পাইডার-ম্যান থ্রিডিতে দেখলাম গতকাল। ((এটা আমার দেখা ৪র্থ থ্রিডি। প্রথম ২ টা তুরস্কে বসে দেখছিলাম। খুবই ফাউল মুভি ছিলো! এর আগে যেটা দেখলাম সেটা ছচ্ছে মাদাগাস্কার ৩। দুর্দান্ত! )) বেশিরভাগ মুভিফ্রিক জানেন বোধহয় এই মুভি সিরিজের ৪র্থ না। এটা রিবুট। নতুন করে স্পাইডার ম্যান শুরু করেছে প্রযোজক সনি পিকচার্স।  নতুন নায়ক, নতুন পরিচালক, নতুন নায়িকা… কাহিনীতে ব্যাপক পরিবর্তন ইত্যাদি! ট্রেইলার দেখেই দারুণ আগ্রহ জন্মেছিলো।

পরিচালক মার্ক ওয়েব হচ্ছেন ফাইভ হান্ড্রেড ডেইজ অব সামার এর পরিচালক। সুতরাং রোমান্স এর একটা প্রভাব তো থাকবেই! হ্যাঁ সেটা ছিলও! সে কথায় আসছি। এইবার স্পাইডার ম্যান এর প্রতিবেশী মেরি জেন [এম জে] আর নেই, বরং আছে গোয়েন স্টেসি। মজার ব্যাপার হলো আমি জানতামই না গোয়েন স্পাইডির প্রথম প্রেম, কমিক বুক অনুসারে! ((http://en.wikipedia.org/wiki/Gwen_Stacy))
যাই হোক, মুভিতে ফিরে আসি। এন্ড্রু গারফিল্ড এবারের স্পাইডার ম্যান। আর গোয়েন এর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন এমা স্টোন। এবারে হ্যারি অসবোর্ন নেই, নেই হ্যারি স্পাইডি এমযে নিয়ে ত্রিভুজ প্রেম! থ্যাঙ্ক গড! তবে হ্যারি আর পিটার এর মধ্যেকার দ্বন্দ্ব বন্ধুত্ব আগের সিরিজ এর খুব জরুরি অংশ ছিলো।
পিটার পার্কার মানে স্পাইডার ম্যান এর শুরু হয় শৈশব থেকে। তার বাবা মাকে আমরা দেখতে পারি। তার বাবা মা, স্পাইডিকে আংকল বেন এর কাছে দিয়ে নিরুদ্দেশ হয়। পিটার টিপিকাল স্কুল যাওয়া ছাত্রের মতো। … স্পাইডার এর কামড় খাবে… নিজের শক্তি আবিষ্কার করবে…কিছু  বিপদগ্রস্থ মানুষ বাঁচাবে…ভিলেন মারবে…!

গারফিল্ডকে গতবারের টোবি ম্যাগুয়ের এর চেয়ে ভালো মানিয়েছে বলে মনে হয়েছে।
তবে এবারে ২ টা জিনিস আমার আলাদা লেগেছে এবং ভালো লেগেছে।

সেটা হচ্ছে নায়িকার চরিত্র। পুরনো সিরিজ এর ৩ টা মুভিতেই নায়িকা খালি বিপদে পড়ে আর নায়ক উদ্ধার করতে যায়! পরিচয় থেকে মুভির শেষ পর্যন্ত! কিন্তু এবারে দারুণ শক্তিশালী চরিত্র ছিল, নায়িকা নায়ককে নিজেকে খুঁজে পেতে সাহায্য করে! নায়িকা নিজে বিপদের ভূমিকা নিয়ে নায়কোচিত ((এটা লেখার সময় বুঝলাম। দারুণ পুরুষতান্ত্রিক পৃথিবীতে আছি আমরা! )) কাজ করে।

আর স্পাইডির নির্মাণ। নিজের সুপার পাওয়ার আবিষ্কার, মুখোশ পোষাক পরার যে বিবর্তন সেটা বেশ উপভোগ্য উপায়ে পরিবেশিত হয়েছে। তবে গতবারের ভিলেন যতটা ভিলেন হয়েছিলো সেটা এবারে হয় নি। ভিলেনকেই বরং বেশ দুর্বল মনে হয়েছে বেশিরভাগ সময়। নায়ক মহৎ হয় ভিলেন এর গুণে মানে দোষে আর কি! এটা তো আমরা জানিই! সেই দিক থেকে নতুন স্পাইডি পিছিয়ে গেছে। ভারতীয় অভিনেতা ইরফান খান খুব অল্প সময়ের জন্য ছিলেন। স্পয়লার এড়াতে চুপ থাকি!

রোমান্স! হ্যাঁ রোমান্স ছিল। মুভি জুড়েই। এবং বিরক্তির উদ্রেগ করে নি, একটি সুপার হিরো একশন মুভিতে যেটা করতে পারত। বরং উপভোগ্য ছিল। মার্ক ওয়েব আসলেই জানেন কী করে রোমান্সের গল্প এগিয়ে নিতে হয়। প্রধান ২ চরিত্রের রসায়ন আসলেই ভালো ছিল।

মুভির স্পেশাল ইফেক্ট যতটা ভালো আশা করেছিলাম আসলেই তাই। দুর্দান্ত। প্রিয় রিভিউয়ার রজার ইবার্ট এর মতো করে বলতে চাই কাব্যিক একশন!। পিটার নিজের ক্ষমতা নিয়ে যখন আনন্দিত হন, সেটা দর্শকের মাঝেও পৌছায়। এটা বেশ বড় একটা পাওয়া মনে হয়েছে।

Great Power comes with great responsibilty
নাহ! এবারে এই কোট সরাসরি ছিল না। তবে চমৎকার ভাবেই সেটা পিটার বুঝেছে এবং ধীরে ধীরে! দর্শকদের সাথে নিয়েই।

থ্রিডি এক্সপেরিয়েন্স আমার আশানুরূপ হয় নি। মাদাগাস্কার ৩ দেখে হয়তবা আমি বখে গেছি! এভাটার দেখলে না জানি কী হতো! তবে বেশ কিছু জায়গায় আসলেই ভালো ছিল।

যারা পিসিতে দেখবেন অবশ্যই ভালো প্রিন্ট এ দেখবেন। কাব্যিক একশন ভালোভাবেই উপভোগ করা উচিৎ!

আমার রেটিং ৩.৫/৫

আমার অন্য লেখা  মুভিতা ১ : অ্যাকশন মুভিতে নারী

বোহেমিয়ান সম্পর্কে

পেশায় প্রকৌশলী, নেশায় মুভিখোর আর বইপড়ুয়া। নিজেকে খুঁজে পাবার জন্য হাঁটতে থাকি। স্বপ্নের সাথে হাঁটা, স্বপ্নের জন্য হাঁটা। https://www.facebook.com/ibappy
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে চলচ্চিত্র-এ এবং ট্যাগ হয়েছে , , , , , , স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

10 Responses to মুভিতাঃ অ্যামেজিং স্পাইডার ম্যান – রিভিউ

  1. স্বপ্ন বিলাস বলেছেনঃ

    দেখার আগ্রহ বেড়ে গেল খুব!

    আর, প্রথমের কোন তথ্যই জানা ছিল না। জেনে ভালো হলো! মুভি দেখতে নিয়ে চমকাতে হলো না!

    রিভিউ ভালো হয়েছে 😀

  2. অনাবিল বলেছেনঃ

    দেখতে হবে!
    🙂

  3. মুভিটা দেখার ব্যাপক আগ্রহ জন্ম নিয়েছে মনে। রিভিউ ভালো লাগলো। এখন শুধুই ভালো প্রিন্টে মুভিটা দেখার অপেক্ষা। 🙂

  4. একুয়া রেজিয়া বলেছেনঃ

    লগ ইন না করে অতিথি হিসেবে মন্তব্য করে দিয়েছি। এখন মডুর অনুমতির জন্যে মন্তব্য পেন্ডি দেখায় 🙁 রিভিউ পড়া মুভিতে দেখার ইচ্ছার ইমো দিলাম

  5. আমি তুমি আমরা বলেছেনঃ

    দেখার অপেক্ষায় 🙂

  6. নিলয় বলেছেনঃ

    ভাইয়া- দেখার আগ্রহ অনেক গুণে বাড়িয়ে দিলেন!
    ইদানিং মুভি blueray ছাড়া দেখিই না- এইটা তো অবশ্যি BRRip দেখতে হবে :yahooo:

  7. ফিনিক্স বলেছেনঃ

    বর্ননা শুনে মুভিতা দেখতে ইচ্ছে করছে।

    সবাই সবকিছুর থ্রিডি দেখে ফেলে, আমি যে কবে দেখবো! :crying:

    তবে ভিলেন দুর্বল শুনে আশাহত হলাম। ভিলেন যত শক্তিশালী হয়, মুভি ততই জমে ওঠে। এটাই পরীক্ষিত সত্য। ‘ব্যাটম্যান: দ্য ডার্ক নাইট’ জোকারের অভিনয় গুণের কারণেই এতটা ভালো জমেছে।

  8. ওয়াহিদ সুজন বলেছেনঃ

    রিভিউ পইড়া আনন্দ পেলাম।

    কবে যে দেখতে পাবো……

  9. শামসীর বলেছেনঃ

    বর্ননা শুনে মুভিতা দেখতে ইচ্ছে করছে।

  10. বোহেমিয়ান বলেছেনঃ

    সময়ের অভাবে উত্তর দিতে পারি নি বলে দুঃখিত।
    এই একটা আলসেমি আমার এখনও গেল না!

বোহেমিয়ান শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।