লাবনীতা

লাবনীতা!লাবনীতা-
এ তোমার সেই নির্ঝরের চিঠি! মনে পড়ে-
যার ভালবাসা,একদিন ঝড়ে পড়েছিল-
তোমার শুভ্র হৃদয়ের উপর!
সেই তীব্র ভালবাসার অম্ল­ রসে জারিত হয়ে;
তুমি বলেছিলে-
“এত ভালবাসা! থাকবে কী আজীবন ”?
এ সেই নির্ঝরের চিঠি।
না- না, রাগ করে একে ছুঁড়ে ফেল না।
একটু ধৈর্য্য ধরো-
কথাগুলো শোন,দোহাই তোমার।
আমি,আজ আর তোমার প্রেম চাইব না-
তোমাকে ভালবাসব না,
তোমায় বলব না-নতুন কোন স্বপ্ন দেখাত।

লাবনীতা,জানি-আজ তোমার কাছে আমি ধূসর;
বিস্মৃত অতীতের ভ্রান্তি।
তবু শত আশায় বুক বেঁধে-
শত কষ্টকে ভুলে , কিছুটা সময় চোখের জলে-
বেদনা দূর করবার জন্যই লেখা ।

তুমি পারবে কী আজ-
আমার হাতে তুলে দিতে,
তোমার ব্যস্ত জীবনের অমূল্য সন্ধ্যার;
একমুঠো অবসর?
পারবে কী অনিন্দিতা! পারবে তুমি?

হয়ত তোমার সংকোচ হচ্ছে।
কিন্ত সত্যি বলছি-আমি সে সন্ধ্যা বেলায়-
অস্ত রবির আলো ছায়ায়,
তোমায় আলিঙ্গন করব না। তোমার রক্তিম-
ওষ্ঠাধর স্পর্শ করব না।স্বপ্ন দেখবো না!
শুধু – শুধু একটি বার , তোমাকে দেখবো।
দেখব-দু চোখ ভরে ,আজও কী তুমি –
রূপকথার সে অনিন্দীতা,নন্দিতা হয়েই আছ?
এইত আর কিছু নয়।
কী দেবে না?
যদি দাও-তবে হৃদয়ের সাড়া দিও।
পত্রের কোন দরকার নেই।
আমি তাতেই জেনে যাব-
তোমার উওর।

পুনশ্চ: প্রথম কবিতা লেখার অপাপবিদ্ধ স্মৃতি প্রখম ভাললাগার মতই রঙিন, কবিতা যদি হয় ফুল পঙতিগুলো তবে ফুলের পাপড়ি!

 

 

রেজওয়ান তানিম সম্পর্কে

হিরণ্ময় নিরবতা, ছাপিয়ে গেছে কোন এক অখ্যাত কবি রাতগুলো তাই ভীষণ রকম মৌন মুখর বেলা -------------- রেজওয়ান তানিম প্রকাশিত গ্রন্থ: মৌনমুখর বেলায় (কাব্যগ্রন্থ,জাতীয় গ্রন্থ প্রকাশন) ব্লগারদের গল্প সংকলন: অবন্তি (ভাষাচিত্র)
এই লেখাটি পোস্ট করা হয়েছে কবিতা-এ এবং ট্যাগ হয়েছে স্থায়ী লিংক বুকমার্ক করুন।

15 Responses to লাবনীতা

  1. সামিরা বলেছেনঃ

    “প্রথম কবিতা লেখার অপাপবিদ্ধ স্মৃতি প্রখম ভাললাগার মতই রঙিন, কবিতা যদি হয় ফুল পঙতিগুলো তবে ফুলের পাপড়ি!” 🙂
    ভাল লেগেছে।

    • এটা কিন্তু কোনক্রমেই আমার প্রথম কবিতা নয়।

      এই লাইনটা যে কি ভেবে লিখলাম আল্লাহই জানে।

      তবে এই কবিতাটা আমার প্রথম হিট কবিতা, এটা বলা যায়।

      ২০০৭ এ লেখা। প্রায় ছ বছর হয়ে গেল

  2. মাধবীলতা বলেছেনঃ

    ছুঁয়ে যাওয়া কবিতা… 🙂

  3. ফিনিক্স বলেছেনঃ

    “কবিতা যদি হয় ফুল পঙতিগুলো তবে ফুলের পাপড়ি!”>> এই অসাধারণ মন ভালো করে দেয়া মন্তব্যের জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। 🙂

    প্রথম কবিতা ভালো লেগেছে, তবে বানান ভুল না থাকলে আরও বেশি নির্মল লাগত। 🙂

  4. ভালো লাগলো! একটা সময় বেশ পড়তাম কবিতা, টুকটাক লিখারও চেষ্টা করতাম, কেন জানি ভীষণ সেরকম সময়ের কথা মনে হলো……

  5. অবন্তিকা বলেছেনঃ

    যদি দাও-তবে হৃদয়ের সাড়া দিও।
    পত্রের কোন দরকার নেই।
    আমি তাতেই জেনে যাব-
    তোমার উওর।

    সুন্দর! 🙂

অবন্তিকা শীর্ষক প্রকাশনায় মন্তব্য করুন জবাব বাতিল

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।