Category Archive: বিবিধ

কেমন হবে ২০২৯?

“অবশ্যই একদিনে হবে না। তবে। এই আজকের দিনটা (২০১৬) নিয়ে অামি যখন ভবিষ্যতবাণী করেছিলাম ৩০ বছর আগে, তখন মানূষের তা পূরোপুরি তামাশা মনে হয়েছিল। (১৯৮৬ তে তিনি বলেছিলেন ২০২০ এর অাগেই, মানুষ ইন্টারনেট দিয়ে সারা বিশ্বের লাইব্রেরী আর তথ্যভান্ডারে ঢুকতে পারবে। আরও বলেছিলেন, মানুষ তা কোন তারবিহীন যোগাযোগ মাধ্যমেই করতে সাচ্ছন্দ বোধ করবে।) আর আজকে …

Continue reading »

গো+এষণাঃ পর্ব-০৬

কনফারেন্স ড. হংওয়ে গুও পিএইচডিতে  আমার প্রথম কনফারেন্স। আর সৌভাগ্যক্রমে এই বার কনফারেন্সের ভ্যানু আমাদের ক্যাম্পাসে। কনফারেন্সে আমার সুপারভাইজর একটা সিম্পজিয়াম আয়োজন করেন। সেখানে সর্বমোট ৫ জন অতিথি সায়েন্টিস্ট আসবে। আমার দায়িত্ব পড়ে তাদের মধ্যে একজনকে দেখা শোনা করার। মানে তাকে হোটেল থেকে নিয়ে আসা, ক্যাম্পাস ঘুরিয়ে দেখানো, উনি যেখানে যান সেখানে উনার সাথে যাওয়া-এই …

Continue reading »

সাদাকালো

নিখাঁদ সাদা নিখাঁদ কালো আর খুঁজে না পাই, উটকোমতন মিশ খেয়ে সব যাচ্ছে হয়ে ছাই! কালোর মাঝে সাদা নাকি সাদার মাঝে কালো? কোনটুকুকে মন্দ বলি? কোনটুকুকে ভালো? একই রঙ-এ কেউ বা বলে, “এই তো কালো ফিকে!” কেউ বা বলে, “কি যে বলেন! পুরোই কালোর দিকে!” কোন কথাটা ভুল হবে আর কোন কথাটা ঠিক? দিনের শেষে …

Continue reading »

মন খারাপের রাতে

ইদানিং রাতে ঘুম আসে না। ঘুমালেও কিছুক্ষণ পরপর ঘুম ভেঙ্গে যায়। গতরাতেও ঘুম ভেঙ্গে দেখি ঘড়িতে সাড়ে তিনটা বাজে। মন খারাপের রাতগুলো অনেক দীর্ঘ হয়। মাথায় অজস্র চিন্তা উঁকিঝুঁকি দিতে থাকে। ভাবলাম, জেগে থাকলে চিন্তাগুলো অযথা জট পাকতে শুরু করবে। তাই ঘুমানোর চেষ্টা করা উচিত। কিন্তু ভাবলেই কি ঘুম আসে? অথচ যখন কাজের চাপ তুঙ্গে …

Continue reading »

মহাকর্ষীয় ঢেউ (গ্র্যাভিটেশনাল ওয়েভ) নিয়ে কেন এই সমারোহ?

[ পত্রপত্রিকা আর গণমাধ্যমে হইচই – মহাকর্ষীয় তরঙ্গ নিয়ে। কি এই তরঙ্গ, কিভাবে এল এ আবিষ্কার, আর কেন এটি এত গুরুত্বপূর্ণ? -তা জানতে গিয়ে আমার এই ক্ষুদ্র চেষ্টা ]   ইতিহাস থেকে আইনস্টাইন হাজার বছর ধরে মানুষ ঊর্ধ্বে তাকিয়েছে বিস্ময়ে, রাতের আকাশে। হাজার হাজার আলোক বিন্দু কিভাবে ঝুলে থাকে? সেই হাজার বছরের  কৌতূহলী মন নিয়ে …

Continue reading »

রাগ বায়োলজি

বলুন দেখি, রাগ কী? মস্তিষ্কের ডর্সাল অ্যান্টেরিয়র সিঙ্গুলেট কর্টেক্স উত্তেজিত হলে আমরা রাগ অনুভব করি। এসময় হিপ্পোক্যাম্পাস, ইনসুলার সাথে সিঙ্গুলেট কর্টেক্সের সিগ্ন্যালিং অণুর আদান-প্রদান হলে, আমরা যে যার মত করে রাগ প্রকাশ করি (কেউ হাউ-কাউ করে, কেউ মারামারি করে, কেউ জিনিসপত্র ভাঙ্গে, কেউ নেশা করে- যার যেভাবে রাগ প্রকাশ করতে ভালো লাগে আরকি)। আপনার রেগে …

Continue reading »

গো+এষনাঃ পর্ব-০৫

সায়েন্স ম্যাগাজিন নাকি চটি গবেষণা মানে শুধুই ল্যাবে কাজ করা না। লেখালেখি, উপস্থাপন, কনফারেন্স সব কিছুই করা লাগে। তবে আজকের গল্পটা একটু ভিন্ন। দুই জন লাইফ সায়েন্স স্টুডেন্টের ম্যাগাজিন বের করা নিয়ে। তখন তৃতীয় বর্ষে পড়ি। বায়োকেমিস্ট্রি, জেনেটিক্স, মলিকিউলার বায়োলজির অনেক বিষয় নিয়েই নিজেরা নিজেরা আলোচনা করি। কিন্তু, সব সময় একটা সমস্যায় আমরা পড়তাম। যখন …

Continue reading »

অন্য কোথা, অন্য কোনখানে – ১

একটা শহরভর্তি মানুষ এত গোমড়ামুখো হয় কীভাবে? ঢাকার মানুষ যে কতটা হাসিখুশি আর গল্পবাজ সেইটা এই শহরে না আসলে আমি বুঝতে পারতাম না। দেশের মানুষ যে রাস্তায়-ঘাটে হো হো করে আসে, কথা বলে আর চিৎকার করে – সেই কথার ভাষা ভালো হোক কি খারাপ, তার যে কত মূল্য তা আমি এখন বুঝতে পারি। এজন্যই কি …

Continue reading »

একঘেয়ে বচন

রসিকেরা বলে থাকেন, আমাদের আদি-পিতা মাতাকে বেহেশত থেকে বের করে দেয়ার কারন আসলে একঘেয়েমী। অফুরন্ত সুখের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় যে অতল একঘেয়েমীর সৃষ্টি হয়েছিল, তার প্ররোচনাতেই তারা নিষিদ্ধ ফলের দিকে মনোযোগ দিয়েছিলেন। ইসস!! ওনারা এটা না করলে আমরাও হয়তো… যাই হোক, আমরা যারা যারা এই মুহুর্তে একঘেয়েমীতে ভুগছি তারা তারা একটু নড়ে চড়ে বসি- কেননা এই লেখাটি …

Continue reading »

এইবার কি হবে সি এন জি মামা?

এইবার কি হবে সি এন জি মামা?   এটা গল্প হলেও সত্য। একটা বিজ্ঞাপন।   তিনজন যুবক। কাঁধে ঝোলানো অফিস এক্সিউটিভ টাইপ ব্যাগ। হন্যে হয়ে সিএনজি ড্রাইভারকে ডাকছে, দাঁড় করানোর চেষ্টা করছে। দেখে বোঝা যায় বাড়ি ফিরবার ভীষণ তাড়া। কিন্তু কোন কিছুতেই কাজ হচ্ছে না। হঠাত একজন সি এন জি চালক রাজি হয়ে গেলেন। তাও …

Continue reading »

Older posts «

» Newer posts